শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৫০

জাপানের গবেষণা প্রতিষ্ঠানে উপদেষ্টা হলেন ড. আতিউর

নিজস্ব প্রতিবেদক

জাপানের গবেষণা প্রতিষ্ঠানে উপদেষ্টা হলেন ড. আতিউর

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান জাপানে সদ্য প্রতিষ্ঠিত আর্থিক অন্তর্ভুক্তি বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্রিয়েটিভ রেসপন্স-সোশ্যাল ইনোভেশন স্কুলের বিশেষ উপদেষ্টার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। টোকিওভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন হিতসুবাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক সেই ইওনেকুরা। গত মঙ্গলবার টোকিওতে অনুষ্ঠিত আর্থিক অন্তর্ভুক্তি এবং এসডিজিবিষয়ক এক বিশেষ   কনফারেন্সে ড. আতিউর রহমান এ দায়িত্ব গ্রহণ করেন। অধ্যাপক ইওনেকুরার সঞ্চালনায় এ কনফারেন্সে মূল নিবন্ধ উপস্থাপন করেন ড. আতিউর রহমান। এ ছাড়াও ব্যাংক এশিয়ার প্রেসিডেন্ট আরফান আলি এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের ওপর একটি নিবন্ধ উপস্থাপন করেন।

 নিবন্ধ উপস্থাপনের পর প্যানেল আলোচনাতেও অংশ নেন ড. আতিউর। সেখানে আলোচনায় অংশ নেন ইনভেস্টমেন্ট ও ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকিং খাতের আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা। মূল নিবন্ধে ড. আতিউর বলেন, বাংলাদেশে আর্থিক অন্তর্ভুক্তির সাফল্যের গল্পের মূল বার্তাটি হলো- ব্যাংকারদের মানসিকতায় ইতিবাচক পরিবর্তন আনা গেলে ব্যাপকভিত্তিক আর্থিক অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করা সম্ভব। আর বাংলাদেশে ব্যাংকারদের চিন্তায় এ পরিবর্তন আনতে মূল ভূমিকা পালন করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তিনি বলেন, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের চ্যালেঞ্জগুলো মাথায় রেখে সামাজিক দায়বদ্ধ এবং পরিবেশবান্ধব অর্থায়নের মাধ্যমে এ লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব। এ কৌশল অবলম্বন করেই গত এক দশকে বাংলাদেশ ব্যাংক টেকসই উদ্ভাবনী উদ্যোগে অর্থায়ন নিশ্চিত করার মাধ্যমে সামাজিক পিরামিডের পাটাতনে থাকা মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে ভূমিকা রেখেছে। আতিউর বলেন, আর্থিক অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে বাংলাদেশের দেখানো পথ বিশ্বের আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো ও এ খাতের নিয়ন্তা কর্তৃপক্ষগুলোর জন্য অনুসরণীয়। এ পথে এগোলেই টেকসই উন্নয়ন এবং প্রবৃদ্ধিকে সুরক্ষিত করা সম্ভব হবে এবং প্রকৃত অর্থেই আর্থিক সেবা খাতকে বৃহত্তর জনগণের কল্যাণে কাজে লাগানো সম্ভব হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর