শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ জুলাই, ২০২১ ২৩:১৮

ভাঙন আতঙ্কে চরাঞ্চলের ১০ হাজার বাসিন্দা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

Google News

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পদ্মা ও মহানন্দা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দেখা দিয়েছে নদীভাঙন। হুমকির মুখে পড়েছে সদর উপজেলার চরাঞ্চল দেবিনগর ও চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের কৃষিজমি ও বিভিন্ন স্থাপনা। ফলে ভাঙন আতঙ্কে রয়েছে ওই এলাকার নদী তীরে বসবাসকারী প্রায় ১০ হাজার মানুষ। স্থানীয়রা জানান, নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দেবিনগর গ্রাম থেকে কয়েক মিটার দূরেই ভাঙনের তান্ডবলীলা দেখাচ্ছে মহানন্দা। কারণ গত বছর নদীভাঙনে তলিয়ে গেছে এলাকার অনেক আবাদি জমি। দ্রুত ভাঙনরোধে ব্যবস্থা না নিলে এবারও অনেক জমি নদীতে বিলীন হয়ে যেতে পারে তাই আবাদি জমির পর ভিটেমাটি হারানোর শঙ্কায় রয়েছেন নদী পাড়ের মানুষ। দেবিনগরের স্থানীয় বাসিন্দা শাহিন আক্তার জানান, গত বছর নদীভাঙনে তার এক বিঘা আবাদি জমি নদীতে তলিয়ে গেছে। এবার যদি পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) ভাঙনরোধে ব্যবস্থা না নেয়, তাহলে আরও জমি নদীতে তলিয়ে যাবে। আরেক বাসিন্দা নূর মোহম্মদ জানান, এ বছর বন্যায় সবচেয়ে বেশি হুমকির মুখে আছে দিলজান হাজীর টোলা, বাসেদ মন্ডলের টোলা ও সামশুদ্দিন মন্ডলের টোলার বাসিন্দারা। জমসেদ আলী নামে স্থানীয় এক গণমাধ্যমকর্মী জানান, বর্তমানে দেবিনগর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড থেকে ভাঙন শুরু হয়েছে।

তাই দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে এই ইউনিয়নের ধুলাউড়ি হাট, দেবিনগর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, দাখিল মাদরাসা, দেবিনগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, দেবিনগর দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, দিয়াড় মহাবিদ্যালয় ও ইসলামিয়া মাদরাসাসহ অনেক স্থাপনা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাবে। অন্যদিকে পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকায় নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে। তাই দ্রুত ভাঙনরোধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন এলাকার মানুষ। এদিকে নদী ভাঙনরোধে স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মেহেদি হাসান জানান, ইতিমধ্যে চরবাগডাঙ্গায় বালুর বস্তা ফেলা হয়েছে। এ ছাড়া অন্য এলাকায় ভাঙনরোধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর