শিরোনাম
বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

অব্যবস্থাপনায় বেহাল রাঙামাটি শহর

সড়কে অবৈধ অটোরিকশা, ভাসমান দোকানে দখল ফুটপাত

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

অব্যবস্থাপনায় বেহাল রাঙামাটি শহর

অব্যবস্থাপনা, অযত্ন, অবহেলায় বেহালদশা রাঙামাটি শহরের। আইন আছে। কার্যত প্রয়োগ নেই। কেউ শহরের সড়কের জায়গায় করছে যত্রতত্র পাকিং। কেউ ফুটপাতে গড়ে তুলেছে অবৈধ অটোরিকশা স্টান্ড। কেউ বসিয়েছে নানা দোকানপাট। কোথাও কোথাও সড়কে রাখা হয়েছে ইট, বালু ও কংক্রিট। প্রধান সড়কে দেখা যায় গরু ছাগলের চলাফেরা। বাদ যায়নি কবরস্থানের সড়কও। সব মিলেই বেহাল দশা এ পর্যটন শহরটির। এতে পথচারীদের চলাচলে ভোগান্তি বেড়েছে।  মাঝে মধ্যেই ঘটে ছোট বড় দুর্ঘটনা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি রূপ আর বৈচিত্র্যে ভরপুর। কিন্তু সেই রূপের জৌলুস হারিয়েছে অব্যবস্থাপনায়। শহর হলেও পরিচালনায় নেই শৃঙ্খলা। শহরের বনরূপা, রিজাভ বাজার, কলেজ গেটসহ বিভিন্ন সড়কে এমন চিত্র দেখা মিলছে। সড়ক দখল করে রাখা হয়েছে বালু, ইট, ট্রাক। ফুটপাত দখল করে শহরের কোর্ট বিল্ডিং এলাকায় গড়ে তোলা হয়েছে অবৈধ অটোরিকশা স্টান্ড। ফুটপাতে বসানো হয়েছে দোকান। এতে সাধারণ মানুষের চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে। পথচারীদের ভোগান্তির পাশাপাশি সৌন্দর্য হারাচ্ছে এ পর্যটন শহরের। স্থানীয় সেবিকা চাকমা বলেন, রাঙামাটি শহরে বেশির ভাগ সড়কের পাশে ফুটপাত নেই। আর যেগুলো আছে তা অবৈধভাবে দখল করে রাখা হয়েছে। বাচ্চাদের চলাচল করতে হয় মূল সড়ক দিয়ে। এতে দুর্ঘটনা লেগেই থাকে। একইভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন স্থানীয় রেহেনা বেগম।

অভিযোগ রয়েছে, রাঙামাটি শহরজুড়ে গড়ে তোলা হয়েছে হাজারো অবৈধ স্থাপনা। নিয়ম-নীতি থাকলেও তোয়াক্কা করে না কেউ। যে যার মতো ফুটপাত ও সড়ক দখল করে গড়ে তুলছে দোকান-পাট। যত্রতত্র বিভিন্ন গাড়ি পার্কিং তো রয়েছেই। ইট-পাথর ও কংক্রিটসহ ঠেলা গাড়ির দখলে সব ফুটপাত। এতে তেমনি চরম ভোগান্তি বেড়েছে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের। বাধ্য হয়ে গাড়ি বাদ দিয়ে হেঁটে পৌঁছতে হয় গন্তব্যে। প্রায় প্রতিদিন কোনো না কোনো সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে মানুষ। মাঝে মধ্যে রাঙামাটি শহর আর সড়কে শৃঙ্খলা আনতে জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ সুপারের উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হলেও তার সুফল মিলছে না। রাঙামাটি পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, সমিলিত প্রচেষ্টা আর সহযোগিতা দরকার। রাঙামাটির সৌন্দর্য ধরে রাখা পৌরসভার একার পক্ষে সম্ভব না। তবুও মানুষকে সচেতন করতে পৌরসভা যথেষ্ট কাজ করে যাচ্ছে। কয়েকবার অভিযান চালিয়ে উচ্ছেদ করা হয়েছে সড়কের অবৈধ স্থাপনা।

সর্বশেষ খবর