Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ জুলাই, ২০১৯ ২১:০০

ছেলেধরা সন্দেহে শিবচরে মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধকে গণধোলাই

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

ছেলেধরা সন্দেহে শিবচরে মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধকে গণধোলাই
প্রতীকী ছবি

ছেলেধরা সন্দেহে মাদারীপুরের শিবচরে এক মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধকে গণধোলাই দিয়েছে এলাকাবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই বৃদ্ধকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পরিবারের লোকজনের কাছে হস্তান্তর করেছে।

পুলিশ জানায়, গত দুই দিন আগে চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার দুরুমখালী গ্রামের রশিদ বেপারীর ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন আবু বেপারী (৫০) বাড়ি থেকে কাউকে কিছু না বলে নিরুদ্দেশ হয়। সোমবার রাতে শিবচর উপজেলার ভদ্রাসন ব্রিজঘাট এলাকায় এক বাড়ির সামনে ঘোরাফেরা করছিল সে। স্থানীয়দের অপরিচিত হওয়ায় ও তার চলাফেরা সন্দেহজনক হওয়ায় এলাকাবাসী ওই মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধের কাছে নাম পরিচয় জানতে চায়। মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় সে এলাকাবাসীর কোন প্রশ্নের সঠিক জবাব দিতে না পারায় ছেলেধরা সন্দেহে এলাকাবাসী ওই বৃদ্ধকে গণধোলাই দিয়ে আহত করে। 

খবর পেয়ে ভদ্রাসন পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই কাজল কুমার সূত্রধর ও এসআই নূরে আলমসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয়দের হাত থেকে ওই মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধকে উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে ওই মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধের সাথে দীর্ঘ সময় কথা বলে পুলিশ তার পরিচয় জানতে পারে। পুলিশের কাছ থেকে খবর পেয়ে মঙ্গলবার বিকেলে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের দুরুমখালী গ্রাম থেকে তার পরিবারের লোকজন শিবচর আসে। বিকেলেই পুলিশ পরিবারের লোকদের হাতে মানসিক ভারসাম্যহীন আবু বেপারীকে হস্তান্তর করে।

শিবচর থানার অফিসার ইনচার্জ জাকির হোসেন বলেন, মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধ লোকটি অপরিচিত হওয়ায় স্থানীয়রা তাকে সন্দেহবসত মারধর করেছে। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে তার পরিবারের লোকজনের হাতে হস্তান্তর করেছে। 


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য