শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৭ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ জুন, ২০১৯ ২৩:২৪

পরিণয়ের আগেই বিচ্ছেদ

পরিণয়ের আগেই বিচ্ছেদ

পরীমণি। রুপালি জগতে পা দেওয়ার পর থেকে বরাবরই আলোচনায় এই অভিনেত্রী। বিশেষ করে হৈচৈ ফেলে দেন ছবি মুক্তির আগেই প্রায় দেড় ডজন ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়ে। সময়ের ধারাবাহিকতায় প্রেমের রাজ্যেও পা ফেলেন এই লাস্যময়ী। আর প্রেমিক পুরুষ হিসেবে পরীর মনে জায়গা করে নেন তামিম। টানা দুই বছর প্রেমের পর গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বাগদান সম্পন্ন হয় তাদের। এমনকি শিগগিরই  বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন-  এমনটাই ঘোষণা দেন। কিন্তু কথায় আছে, কপালের লিখন যায় না খন্ডন। সম্পর্কে বেজে ওঠে  ভাঙনের সুর। এরপর থেকেই নানাজন নানা কথা বলছেন। কেউ অভিযোগের আঙ্গুল তুলছেন পরীর দিকে, কেউবা আবার দুষছেন তামিমকে। এসব অভিযোগের ভান্ডার নিয়ে পরী ও তামিমের সঙ্গে কথা বলে বিস্তারিত জানাচ্ছেন-  শামছুল হক রাসেল

 

 

প্রেমের কোনো বিচ্ছেদ নেই : পরীমণি

 

কেমন আছেন?

হুম, বেশ ভালো আছি।

 

ভূমিকা না করে সরাসরি জানতে চাচ্ছি, সত্যিই কী প্রেমের বিচ্ছেদ ঘটিয়েছেন?

প্রেমের কোনো বিচ্ছেদ নেই। হা. হা.. হা...

 

সিদ্ধান্ত কী একতরফাই ছিল?

না তো। আমরা তো যথেষ্ট পরিণত। তাহলে একতরফা হবে কেন?

 

কেউ কেউ বলছেন আপনাদের মাঝে তৃতীয় কোনো পক্ষ উদয় হয়েছে?

তৃতীয় পক্ষ শব্দটাই আমাদের মাঝে কখনোই ছিল না। আর পক্ষ আসবে কোত্থেকে?

 

তামিমের সঙ্গে নাকি বিয়েও হয়েছিল?

যারা এমন জমিয়ে বা ধুমধাম করে প্রেম করতে পারে তারা এত সস্তা মানসিকতার হয় না।

 

শুনলাম কাজকর্ম নিয়ে আপনার স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ, এটাই কী...

খালি তো শুনলামই বলছেন। তা, কে বা কারা শুনায় এসবÑ শুনি একটু! আমি বরাবরই বলেছি তামিম আমার কাজের ব্যাপারে কখনোই কোনো হস্তক্ষেপ করেনি বরং সবসময় সমর্থন করেছে।

 

ফের এক হওয়ার সম্ভাবনা আছে কী?

অপেক্ষায় থাকেন, হা. হা.. হা...।

 

কাজের ক্ষেত্রে এ ফাটল মানসিকভাবে পর্যুদস্ত করবে না?

আমি কাজের জন্য নিজেকে প্রস্তুত না করে কাজ করছি না নিশ্চয়ই। মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিয়েই ক্যামেরার সামনে দাঁড়াই। সুতরাং পর্যুদস্ত হওয়ার প্রশ্নই উঠে না।

 

 

পরীর জন্য শুভকামনা  রইল : তামিম

 

তা বিচ্ছেদটা কি হয়ে গেল...

দেখুন এ বিষয়ে আর কি বলব। আমাদের বিচ্ছেদ নিয়ে পরী যে বক্তব্য দিয়েছে, সে বিষয়ে আমার পূর্ণ শ্রদ্ধা ও সমর্থন রয়েছে। 

 

কেউ কেউ বলছেন, বিচ্ছেদের হ্যাটট্রিক পাড়ি দিলেন, এটা কেন?

হয়তো আমার এক্স-দের নিয়ে কথা আসছে। তাহলে শুনুন, প্রেম বিষয়টা সত্যিই অন্যরকম। প্রথম প্রেমে সফলতা নাও আসতে পারে। তাই বলে দ্বিতীয় বা তৃতীয় প্রেম করা যাবে না, তা ঠিক নয়। প্রথম সম্পর্ক কোনো কারণে ভেঙে গেলে সেটা হয়তো পরবর্তী কোনো সম্পর্কে ভালো দিকে গড়াতেও পারে। তার মানে এটাও নয় যে, একসঙ্গে একাধিক প্রেম বা সম্পর্কে জড়াতে হবে। আমি আবারও বলছি, আমার ক্ষেত্রেও সেই সম্পর্কগুলো একসঙ্গে হয়নি। কখনো একসঙ্গে একাধিক প্রেমে জড়াইনি। যখন যে সম্পর্ক গড়িয়েছে, ধরে রাখার চেষ্টা করেছি।

 

তাহলে প্রেম বলতে কি বুঝাতে চাচ্ছেন?

অনেকেই আছেন, যারা ৬-৭ বছর চুটিয়ে প্রেম করছেন। তারা কিন্তু বিষয়গুলো শেয়ারও করছেন না, গোপনেই রাখছেন। অথচ আমি যখনই প্রেমে জড়িয়েছি তা লুকিয়ে রাখিনি। এই রকম একটা বিষয়কে লুকিয়ে না রেখে, বরং জানান দেওয়াই প্রেমের সার্থকতা। প্রেমের মতো পবিত্র জিনিসকে লুকিয়ে রাখা ঠিক নয়।

 

পরীর উদ্দেশ্যে কিছু বলতে চান?

পরীর জন্য শুভকামনা। ‘স্টে ব্লেসড, স্টে হ্যাপি’।


আপনার মন্তব্য