শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ আগস্ট, ২০১৯ ১২:৫১
আপডেট : ২২ আগস্ট, ২০১৯ ১২:৫৫

'আজ পুলিশ চুল নিয়ে দৌড়-ঝাঁপ করছে, কাল পোশাক নিয়ে করবে'

শওগাত আলী সাগর

'আজ পুলিশ চুল নিয়ে দৌড়-ঝাঁপ করছে, কাল পোশাক নিয়ে করবে'

চুলের কোনো ধরনের ‘কাট’কে ‘বখাটে কাট’ বলা হয়ে থাকে? এই ‘কাটটি’ যে 'বখাটে কাট’ সেটি রাষ্ট্রের কোন বিধিতে কোন কর্তৃপক্ষ নির্ধারণ করেছেন? কোনো আইনে, কোনো কর্তৃপক্ষীয় সিদ্ধান্তে- চুলের কোনো বিশেষ কাটকে নিষিদ্ধ ঘোষণা না করা হলে পুলিশ সেই ‘কাট’ এর বিরুদ্ধে অভিযোগ চালায় কীভাবে?

চুলের ’বখাটে কাট’ এর ব্যাপারটাকে প্রথমে আমার কাছে হাস্যরস মনে হয়েছিলো। পত্রিকায় খবর পড়ে এখন দেখছি, সেটি মোটেও হাস্যরস না। পুলিশ খুবই সিরিয়াস। মাগুরার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি কি এতোটাই ভালো যে পুলিশ কোনো কাজ না পেয়ে তরুনদের চুলের কাটের পেছনে দৌড় ঝাঁপ করছে!
ডিজিটাল যুগে বাংলাদেশের যে কোনো প্রত্যন্ত অঞ্চলের ছেলে মেয়েরা বিশ্বের হাল নাগাদের ফ্যাশনের খবর পেয়ে যায়। সেগুলো তারা অনুসরণ করতে চাইতেই পারে। আর চুলের কাট দিয়ে, পোশাকের স্টাইল দিয়ে কি বিশেষ কিছু ঈঙ্গিত করার সুযোগ আছে? আমার তো মনে হয় না।

চুলের তথাকথিক ‘বখাটে কাট’ নিয়ে পুলিশের ভূমিকার ব্যাপারে আমার প্রবল আপত্তি আছে। আজ পুলিশ চুল কাটা নিয়ে দৌড়-ঝাঁপ করছে, কাল পোশাক নিয়ে করবে, পরশু হাটার ভঙ্গি নিয়ে করবে। আমাদের তরুণরা কি পুলিশি খবরদারির মধ্যে তাদের দৈনন্দিন জীবনযাপন করবে? দেশটা কি একটা পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত হয়ে যাবে?

পুলিশের উচিত তথাকথিত ‘চুলের বখাটে কাট নিয়ে’ ‘পুলিশি বখাটেপনা’ থেকে নিজেদের সরিয়ে রাখা।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর