Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জুন, ২০১৯ ২৩:৩৪

উন্নত দেশের পথে কিন্তু সভ্য হচ্ছি কি

নিজস্ব প্রতিবেদক

উন্নত দেশের পথে কিন্তু সভ্য হচ্ছি কি

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল বলেছেন, ‘আমরা অনুন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ হয়েছি। এখন উন্নত দেশের পথে আছি।’ কিন্তু এই মানবাধিকারকর্মী মনে করেন, ‘মানুষের ন্যায়বিচার প্রাপ্তি ও সমান অধিকারের ক্ষেত্রে এখনো অনেক দূরে আছি।’ তাই তিনি প্রশ্ন করেন, ‘আমরা উন্নত হচ্ছি বটে, কিন্তু সভ্য হচ্ছি কি?’ ‘কল্পনা চাকমা অপহরণের ২৩ বছর : ন্যায়বিচারের দাবি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন সুলতানা কামাল। রাজধানীর ডব্লিউভিএ মিলনায়তনে গতকাল হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) ও বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক এ আয়োজন করে। ১৯৯৬ সালের ১২ জুন রাতে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার নিউল্যালাঘোনা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে অপহৃত হন এইচডব্লিউএফের তখনকার সাংগঠনিক সম্পাদক কল্পনা চাকমা। এ ঘটনা সেই সময় ব্যাপক আলোড়ন তোলে। ঘটনার পর একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি হয়। ওই কমিটির প্রতিবেদন আজও প্রকাশ করা হয়নি। কল্পনারও খোঁজ দিতে পারেনি সরকারি কোনো সংস্থা। কল্পনা চাকমা অপহরণের মামলায় এই দীর্ঘসূত্রতার সমালোচনা করেন সুলতানা কামাল। তিনি বলেন, কল্পনা চাকমাকে উধাও করে দেওয়া হয়েছে। এটা করার মাধ্যমে ওই শিক্ষাই দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল যে, কেউ প্রতিবাদী হবে না।

কল্পনার মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রতিবাদী সত্তাকেও তারা উধাও করে দিতে চেয়েছে। নির্বিচারে এ সত্তাকে শেষ করে দিতে চেয়েছে। সুলতানা কামাল বলেন, ‘আজ ২৩ বছরের এ ঘটনার কোনো সুষ্ঠু বিচার না হওয়া রাষ্ট্রের ব্যর্থতা। এর দায় রাষ্ট্রকে নিতেই হবে। কল্পনা চাকমা অপহরণ বিচারহীনতার এটি জলজ্যান্ত উদাহরণ। এটা রাষ্ট্রীয় নির্মমতার প্রতীক। পাশাপাশি কল্পনা নিজে আমাদের কাছে সংগ্রামেরও প্রতীক।’ সভায় আরও বক্তব্য দেন নারীনেত্রী খুশী কবির, আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং, নারীনেত্রী রাখী দাশ পুরকায়স্থ, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সদস্য দীপায়ন খীসা প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মনিরা ত্রিপুরা।


আপনার মন্তব্য