মঙ্গলবার, ২৮ জুন, ২০২২ ০০:০০ টা

মারিউপোলের পর সেভেরোদোনেৎস্কও রাশিয়ার দখলে

মারিউপোলের পর এবার পুতিন বাহিনী দখল করল কৌশলগত দিক থেকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সেভেরোদোনেৎস্ক শহর। এই খবরের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছে কিয়েভ। যদিও তাদের দাবি, কৌশলগত কারণে সেভেরোদোনেৎস্ক থেকে পিছিয়ে সিভেরস্কি ডোনেৎস নদীর অন্য পারে লিসিচানস্ক শহরে জমা হয়েছে ইউক্রেনের সেনাবাহিনী। গত মাসে বন্দর শহর মারিউপোল দখল করে রুশ সেনা। তারপর সেভেরোদোনেৎস্ক হচ্ছে দ্বিতীয় বড় শহর যেটি তারা দখল করেছে। তবে যুদ্ধের ফলে কার্যত ধূলিসাৎ হয়ে গেছে শহরটি। এক সময় লক্ষাধিক মানুষের বাসস্থান প্রাণচঞ্চল সেভেরোদোনেৎস্ক এখন ধ্বংসপুরী। শহরটি মেয়র ওলেকসান্দ্র স্ত্রয়ুক বলেন, ‘শহরের নিয়ন্ত্রণ রুশ সেনার হাতে। সেখানে নিজেদের মতো করে শাসনব্যবস্থা চালু করার চেষ্টা করছে তারা। এদিকে, যুদ্ধে বড় ধাক্কার পরও লড়াই চালিয়ে যাওয়ার বার্তা দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। ভিডিও বার্তায় জাতির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘যে সব শহর আজ রাশিয়ার দখলে সেগুলো পুনরুদ্ধার করবে ইউক্রেন।’ তবে সেভেরোদোনেৎস্ক শত্রুর হাতে চলে যাওয়ায় তিনি যে ধাক্কা খেয়েছেন তা জেলেনস্কির কথায় স্পষ্ট হয়ে ওঠে। তিনি বলেন, ‘এই লড়াই কতদিন চলবে আমরা জানি না। আর কত আঘাত, ক্ষতি ও বলিদানের পর জয়ের আশা দেখতে পাওয়া যাবে তাও জানা নেই।’

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরু করে রাশিয়া। কিন্তু এখনো কিয়েভ দখল করতে পারেনি তারা। লড়াইয়ে কয়েক হাজার সেনা ও বিপুল অস্ত্র খুইয়ে গত এপ্রিলে সামরিক অভিযানের প্রথম পর্বে ইতি টানার কথা ঘোষণা করে রাশিয়া। তারপর গত মাসে মারিওপোল শহর দখল করে তারা। একইসঙ্গে দোনবাস অঞ্চলে অভিযান তীব্র করে তোলে পুতিনের বাহিনী। এখনো দোনবাসের দোনেৎস্ক ও লুহানস্ক অঞ্চলে রুশপন্থি বিদ্রোহীদের সঙ্গে তুমুল লড়াই চলছে ইউক্রেনীয় সৈন্যদের।

সর্বশেষ খবর