Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : ৩০ অক্টোবর, ২০১৯ ১০:৪৪

অনলাইনে মোবাইল অর্ডার দিয়ে পাথর পেলেন সংসদ সদস্য!

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

অনলাইনে মোবাইল অর্ডার দিয়ে পাথর পেলেন সংসদ সদস্য!

অনলাইনে মোবাইল ফোনের অর্ডার দিয়ে হাতে পেলেন পাথরভর্তি বাক্স। হতবাক করা ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলার এক বিজেপি সংসদ সদস্যের সাথে। 

জানা গেছে, স্যামসাং এম-৩০ মোবাইল কেনার জন্য গত ২৩ অক্টোবর অনলাইনে  বুকিং করেন তার ছেলে অনিমেষ মুর্মু। মোবাইলের দাম ছিল ১১ হাজার ৯৯৯ রুপি। 

সোমবার ওই কুরিয়ার সংস্থার পক্ষ থেকে মোবাইলের একটি প্যাকেট আসে সংসদ সদস্যের বাড়িতে। কিন্তু মোবাইলের প্যাকেট খুলেই চোখ ছানাবড়া হয়ে যায় বিজেপির সাংসদ ও তার ছেলের। প্যাকেটের মধ্যে ছিল দুটি লম্বা পাথর। সোমবার সকালে এই ঘটনায় ওই সংসদ সদস্যের পক্ষ থেকে পুরাতন মালদা থানায় একটি বেসরকারি কুরিয়ার সংস্থা ও একটি অনলাইন সংস্থার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 

ঘটনার পর পুরাতন মালদা থানার নলডুবি এলাকায় ওই কুরিয়ার সংস্থায় তদন্তে যায় পুরাতন মালদা থানার পুলিশ। নির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করার পর তদন্ত শুরু করেছে সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ।

এই ঘটনায় রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সংসদ সদস্য খগেন মুর্মু । মঙ্গলবার তিনি বলেন, 'গতকাল আমার স্ত্রী কুরিয়ার সংস্থার কাছ থেকে রেডমি ৫এ  হ্যান্ডসেটের একটি বাক্স গ্রহণ করে। কিন্তু আমি ওই প্যাকেট খুলতেই স্যামসাং এম ৩০ ফোনের বদলে পাথর পাই।'

তিনি আরো বলেন, 'এরকম ঘটনা সত্যি আমাকে হতাশ করে দিয়েছে। মাঝে মাঝে শুনতাম কিছু মানুষ প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। আর সেই প্রতারণার শিকার এবার আমিও হলাম। এরকম ঘটনায় ওই অনলাইন ও কুরিয়ার সংস্থা থেকে মানুষের বিশ্বাস উঠে যাবে। তবে কেন এরকম ভাবে প্রতারিত করা হলো তা আইনের মাধ্যমে শেষ দেখে ছাড়ব।'

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,  সোমবার সকালে মালদা শহরের বাঁধরোড এলাকায় সাংসদ খগেন  মুর্মুর বাড়িতে একটি বেসরকারি কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে বাক্সবন্দী প্যাকেট ডেলিভারি করা হয়। একটি অনলাইন সংস্থার মাধ্যমে নামিদামী কোম্পানির মোবাইল বুক করা হয়েছিল। সেই রুপি দিয়ে বিল মিটিয়ে দেওয়া হয়েছিলো। এরপর প্যাকেট খুলতেই বেরিয়ে আসে দুটি লম্বা পাথর। আর তাতেই অসন্তোষ প্রকাশ করেন সংসদ সদস্য ও তার পরিবার। যেহেতু ওই কুরিয়ার সার্ভিসটি পুরাতন মালদা এলাকায় অবস্থিত। তাই পুরো ঘটনার বিষয়ে পুরাতন মালদা থানার পুলিশকে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

পুরাতন মালদা থানার পুলিশ জানিয়েছে, পুরো ঘটনা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। এই প্রতারণা কাণ্ডের সঙ্গে কারা কিভাবে যুক্ত রয়েছে তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য