Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ১৯:৫৯

সবজিবাহী যানে চাঁদাবাজির বিষয়টিতে দ্বিমত করছি না: কৃষিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

সবজিবাহী যানে চাঁদাবাজির বিষয়টিতে দ্বিমত করছি না: কৃষিমন্ত্রী
কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক (ফাইল ছবি)

রাজধানীতে সবজি নিয়ে আসা যানবাহনে চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, সবজি পরিবহনের সময় চাঁদা আদায়ের বিষয়টিতে আমি দ্বিমত পোষণ করছি না। এটা সত্য যে, কিছু কিছু পয়েন্টে চাঁদাবাজি হয়। চাঁদা আদায়ের ঘটনা ঘটছে। সেগুলো নিয়ন্ত্রণে সর্বাত্মক চেষ্টা চালানো হচ্ছে। আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় চাঁদাবাজির বিষয়টি মনিটরিং করে আসছে। বিভিন্ন পরিবহন শ্রমিক সংগঠন নানা কারণে চাঁদা সংগ্রহ করে।

সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনে বৃহস্পতিবার প্রশ্নোত্তর পর্বে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির অনুপস্থিতিতে মহিলা এমপি আদিবা আঞ্জুম মিতার সম্পূরক প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক এসব তথ্য দেন। এর আগে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠকের শুরু হয়।

রজমানে দাম অস্বাভাবিক হবে না: নুরুন্নবী চৌধুরীর সম্পুরক প্রশ্নের জবাবে আসন্ন রমজানে নিত্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপগুলো তুলে ধরে কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক বলেন, রজমানকে কেন্দ্র করে নিত্য পণ্যের দাম অস্বাভাবিক হবে না। আদিবা আঞ্জুম মিতার লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রমজানে নিত্য প্রয়োজনী দ্রব্য সামগ্রীর দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে রাজধানী, বিভাগীয় শহর প্রতিটি মোট ১৮৭টি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে টিসিবি সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য বিক্রয় করবে। টিসিবি ডিলারদের মাধ্যমে ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে ঢাকা মহানগরীতে ৩৫টি, চট্টগ্রাম মহানগরীতে ১০টি, অবশিষ্ট ৬টি বিভাগীয় শহরের প্রতিটিতে ৫টি করে ৩০টি এবং ৫৬টি জেলা শহরের প্রতিটিতে দুটি করে ১১২টি স্থানে এই পণ্য বিক্রয় করা হবে। 

ভারতের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি ৭ হাজার ৭৪৮ কোটি ডলার

মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামানের (মেহেরপুর-২) লিখিত প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, ভারতের সাথে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ৭ হাজার ৭৪৮ দশমিক ২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের ৮৭৩ দশমিক ৩ মিলিয়ন ডলার রপ্তানির বিপরীতে আমদানির পরিমাণ আট হাজার ৬২১ দশমিক ৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। সংসদে দেওয়া মন্ত্রীর তথ্য অনুযায়ী সার্কভুক্ত অন্য দেশগুলির সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতির মধ্যে পাকিস্তানের সাথে ৪৭১ দশমিক ৪ মিলিয়ন ডলার, ভুটানের সাথে ২৭ দশমিক ৯ মিলিয়ন ডলার, শ্রীলঙ্কার সাথে ১৬ দশমিক ২ মিলিয়ন ডলার, মালদ্বীপের সাথে ১২ দশমিক ৯ মিলিয়ন ডলার ও আফগানিস্তানের সাথে ২ মিলিয়ন ডলার।

দেশে চাহিদার চেয়ে বেশি খাদ্য উৎপাদন হয়:  বেনজির আহমদের (ঢাকা-২০) লিখিত প্রশ্নের জবাবে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার জানান, দেশে বর্তমানে চাহিদার চেয়ে বেশি খাদ্যশস্য উৎপাদন হয় বিধায় খাদ্যের কোন ঘাটতি নেই। তিনি জানান, বর্তমানে দেশে ১৬.৫০কোটি জনসংখ্যার জন্য প্রতিদিন প্রতিজনের ৫০৯ গ্রাম হিসেবে বছরে ৩০৬.৫৫ লখ মেট্টিক ট্রন খাদ্যশস্যের চাহিদা রয়েছে। গত ২০১৭-১ অর্থবছরে নীট উৎপাদন হয়েছে ৩১৯.২৬ লাখ মেট্রিক টন চাল ও ৯.৩৪ লাখ মেট্রিক টন গম। বর্তমানে চাহিদার চেয়ে বেশি খাদ্যশস্য উৎপাদন হয় বিধায় খাদ্যের কোন ঘাটতি নেই।

বিডি-প্রতিদিন/২৫ এপ্রিল, ২০১৯/মাহবুব

 

 


আপনার মন্তব্য