শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:৪১

বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক দেবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকার ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব’ পদক প্রবর্তন করেছে। রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া, সমাজসেবা, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ, গবেষণা, কৃষি ও পল্লী উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ও গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকার জন্য এ বছর (২০২১ সাল) থেকে পাঁচজন বাংলাদেশি নারীকে এ পদক প্রদান করা হবে। গতকাল ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক-২০২১’ প্রদানসংক্রান্ত কর্মসূচি প্রণয়নবিষয়ক এক ভার্চুয়াল সভায় মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা এ কথা জানান। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গমাতার অবদান চিরস্মরণীয় করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীর গৌরবোজ্জ্বল অবদানের স্বীকৃতির জন্য ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক’ প্রবর্তন করেছে। সভায় জানানো হয়, পদকটি নারীদের জন্য ‘ক’ শ্রেণিভুক্ত সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পদক হিসেবে গণ্য হবে। পদক প্রদানের জন্য মনোনীত নারীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। প্রতি বছর সর্বোচ্চ পাঁচজন নারীকে এ পদক প্রদান করা হবে। পদকপ্রাপ্ত একজন নারী পাবেন ১৮ ক্যারেট মানের ৪০ গ্রাম সোনা দ্বারা নির্মিত একটি পদক। এ ছাড়া পদকের একটি রেপ্লিকা, ৪ লাখ টাকার চেক ও সম্মাননা সনদ। এ লক্ষ্যে ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক নীতিমালা ২০২১’ প্রণয়ন করা হয়েছে। প্রতি বছর ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত ‘ক’ শ্রেণির জাতীয় দিবস অনুষ্ঠানে চূড়ান্তভাবে মনোনীত ব্যক্তিদের এ পদক প্রদান করা হবে। এ বছর পদক প্রাপ্তির ক্ষেত্র উল্লেখপূর্বক ৩১ মে, ২০২১-এর মধ্যে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক নীতিমালা ২০২১ অনুযায়ী ও নির্ধারিত ছকে আবেদন করতে হবে। আবেদনের নির্ধারিত ছক www.mowca.gov.bd ও www.jms.gov.bd-এ পাওয়া যাবে। যা পূরণ করে ৩১ মের মধ্যে ইমেইলে ([email protected]) এবং ডাকযোগে হার্ড কপি সচিব, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় বরাবর পাঠাতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর