Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ নভেম্বর, ২০১৬ ০৮:১৯

বাংলাদেশিদের 'বন্ধু' এটর্নী মেরি নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে

এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে:

বাংলাদেশিদের 'বন্ধু' এটর্নী মেরি নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে
নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলের প্রার্থী এটর্নী মেরির সাথে বাংলাদেশি ক্যাম্পেইন ডিরেক্টর আকতার হোসেন বাদল, এশিয়ান ডিরেক্টর র‌্যা হুই এবং এটর্নী মেরির স্বামী এটর্নী পেরি ডি সিলভার।

বিশ্বের রাজধানী হিসেবে খ্যাত নিউইয়র্ক সিটির ম্যানহাটানের ক্যানেল স্ট্রিট সংলগ্ন ইস্ট হাউস্টন স্ট্রিট থেকে ৩৪ স্ট্রিট পর্যন্ত এলাকা নিয়ে গঠিত নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিল ডিস্ট্রিক্ট-২ থেকে লড়ছেন এটর্নী মেরি সিলভার। প্রবাসীদের প্রিয়  এটর্নী পেরি ডি সিলভারের স্ত্রী এটর্নী মেরির নির্বাচন আগামী বছরের নভেম্বরে। ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে তিনি লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এজন্য তাকে বিভিন্ন প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে হবে। প্রচারণার শুরুতেই তিনি বাংলাদেশিসহ এশিয়ান-আমেরিকানদের আন্তরিক সহায়তা চেয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে এটর্নী মেরি বলেছেন, ‘বাংলাদেশিরা আমার স্বামীকে অনেক দিয়েছেন। এটর্নী পেরিও বাঙালিদের সকল অনুষ্ঠান-উৎসবের সহযাত্রী হয়েছেন এবং হচ্ছেন। এবার কিছুটা রিটার্ন চাই। আর তা হতে পারে আর্থিকভাবে, সাংগঠনিকভাবে। কারণ, আমার নির্বাচনী এলাকায় রয়েছেন অনেক বাংলাদেশি। তারা ব্যবসা-বাণিজ্য করার পাশাপাশি ভোটার তালিকাতেও রয়েছেন।’

এটর্নী মেরি বলেন, ‘গত নভেম্বরের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদে হিলারি ক্লিনটনকে ভোট দিয়েও যারা বিজয়ের ছোঁয়া পাননি, তাদেরকে এখন থেকেই সংকল্পবদ্ধ হতে হবে ৪ বছর পরের নির্বাচনে ডেমোক্রেটিকদের বিশাল বিজয় প্রদানের। সে আলোকেই আমিসহ অনেকে মাঠে থাকব।’

এটর্নী মেরি তার নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর অভিপ্রায়ে ইতিমধ্যেই এশিয়ান-আমেরিকান, সাউথইস্ট এশিয়ান-আমেরিকান এবং ল্যাতিন-আমেরিকান কমিউনিটি বিষয়ক ক্যাম্পেইন ডিরেক্টর নিয়োগ করেছেন। তারা হলেন মোহাম্মদ আকতার হোসেন বাদল- সাউথইস্ট এশিয়ান-আমেরিকান কমিউনিটি, র‌্যা হুই-এশিয়ান-আমেরিকান কমিউনিটি এবং পেড্রো রীজ-ল্যাটিন-আমেরিকান কমিউনিটি। কুইন্সের একটি রেস্টুরেন্টে এই ৩ ক্যাম্পেইন ম্যানেজারের সাথে পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনার সময় এটর্নী পেরি ডি সিলভারও ছিলেন। তারা সকলে নিজ নিজ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ নিয়ে ‘মেরি সিলভার ফর কাউন্সিল’ ব্যানারে একটি ডিনার পার্টির প্রস্তাব পেশ করেছেন। সেখান থেকেই প্রচারণার তহবিল গঠন করার প্রক্রিয়া শুরু হবে। এ ব্যাপারে এটর্নী পেরি প্রবাসী বাংলাদেশিদের আন্তরিক সহায়তা চেয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘নিজেকে বাংলাদেশিদের সাথে একাকার করেছি বহু বছর ধরে। সেই ধারায় এখন সহায়তা চাই মেরির নির্বাচনী প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করার জন্য।’

বাংলাদেশ, ভারতসহ দক্ষিণ এশিয়ান-আমেরিকানদের সমন্বয়ের জন্য ক্যাম্পেইন ডিরেক্টর ও মূলধারার ব্যবসায়ী আকতার হোসেন বাদল এ সংবাদদাতাকে বলেন, ‘তৃণমূল থেকে সামনে এগিয়ে যাওয়ার এটি বড় একটি সুযোগ। একে হতেছাড়া করা যাবে না। নিউইয়র্ক সিটির ব্রুকলীন, কুইন্স এবং ব্রঙ্কসে বাংলাদেশি-আমেরিকানের সংখ্যা অনেক বেড়েছে। এখন সময় হচ্ছে ঐক্যবদ্ধ হবার। তাহলে আমরা নিজেরাই সিটি কাউন্সিলের পথ পেড়িয়ে কংগ্রেসে প্রার্থী হতে পারবো।’

বিডি-প্রতিদিন/১৭ নভেম্বর, ২০১৬/মাহবুব


আপনার মন্তব্য