শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:০৭

বাংলাদেশের বিপক্ষে সতর্ক ওমান

বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশের বিপক্ষে সতর্ক ওমান

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ঠিক ১০০ ধাপ এগিয়ে ওমান। যেখানে তারা ৮৪ নম্বর অবস্থানে। সেখানে বাংলাদেশ আছে ১৮৪তে। এই অবস্থায় ঘরের মাঠে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির জয় নিয়ে দুশ্চিন্তার থাকার কথা নয়। নির্ভার হয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে মাঠে নামার কথা। না, ফেবারিট হয়েও ওমান দুশ্চিন্তা মুক্ত নয়। বাংলাদেশকে নিয়ে তাদের ভাবতে হচ্ছে। এমন কি হারের শঙ্কাও পেয়ে বসছে। না ভেবে উপায়ও নেই। বিশ্বকাপ বা এশিয়াকাপ বাছাইপর্বে বাংলাদেশ তিন ম্যাচেই জয়ের মুখ দেখেনি। প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে ০-১, দ্বিতীয় কাতার ০-২ ও তৃতীয় সল্টলেকে ভারতের বিপক্ষে ১-১ ড্র করেছিল। অন্যদিকে আফগানিস্তানও ওমানকে হারালেও কাতারের কাছে লড়াই করে হেরেছে।

তাহলে বাংলাদেশকে ঘিরে ভয় কেন? আগামীকাল মাসকাটে দুই দল মুখোমুখি হচ্ছে। শক্তির বিচারে স্বাগতিকদের জেতার সম্ভাবনা বেশি। তারপরও ওমানকে ভাবতে হচ্ছে। তিন ম্যাচে বাংলাদেশ দুর্দান্ত পারফরম্যান্স প্রদর্শন করেছে। বিশেষ করে কাতার ও ভারতের বিপক্ষে যে নৈপুণ্য প্রদর্শন করেছে তা গত ২০ বছরেও দেখা যায়নি। কাতার জিতেছে ভাগ্যের জোরে। যে সুযোগ এসেছিল তা কাজে লাগাতে পারলে ফল অন্যরকম হতে পারত।

আর যে ভারত ঢাকঢোল পিটিয়ে সল্টলেকে জামালদের গোল বন্যায় ভাসানোর চিন্তা করছিল তারাই কি না হারতে বসেছিল। ভাগ্য সহায় ছিল বলেই ৮৮ মিনিটে সমতা ফিরিয়ে হার ঠেকাতে পেরেছিল। সুতরাং বাংলাদেশকে হালকা চোখে দেখবে কোন যুক্তিতে। মাসকাটেইতো ওমানের শীর্ষ স্থানীয় দলকে ৩-১ গোলে হারিয়ে জামালরা নিজেদের শক্তি জানান দিয়েছিল। ওমান যতই গুরুত্ব দিক না কেন, বাংলাদেশের কোচ জেমি ডে শিষ্যদের বলে দিয়েছেন ওমান দারুণ শক্তিশালী।

ওদেরকে হারাতে হলে সেরাটাই খেলতে হবে।

ওমানের মাঠে ওমানকে হারানোটা সত্যিই গর্বের। কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে ১০ দিন আগেই দেশ ছেড়েছে ফুটবলাররা। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া বলেছেন, চাপটা ওমানেরই বেশি থাকবে। আমাদের হারানোর কিছু নেই। নির্ভার হয়ে খেলতে চাই। আশা রাখি সমর্থকদের খুশি করতে পারব।


আপনার মন্তব্য