শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:৪১

প্রবৃদ্ধিতে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে বাংলাদেশ

অর্থনীতি সমিতির সেমিনার

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রবৃদ্ধিতে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে বাংলাদেশ

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে বাংলাদেশ অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে বলে মনে করেন সাবেক প্রধান বিচারপতি এম তাফাজ্জল ইসলাম। তবে ৯ থেকে ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি দিয়েও কোনো লাভ হবে না বলে মনে করেন অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত। তিনি প্রবৃদ্ধির বণ্টনে ন্যায্যতা নিশ্চিত করার ওপর জোর দিয়েছেন।

গতকাল রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ইনঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইইবি) মিলনায়তনে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি আয়োজিত ‘টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ২০৩০’ শীর্ষক জাতীয় সেমিনারে দুই বক্তা এ সব কথা বলেন। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সাবেক প্রধান বিচারপতি এম তাফাজ্জল ইসলাম। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা স্কুল অব ইকোনমিকসের চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ। সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত। স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক ড. জামাল উদ্দিন আহমেদ। মূল প্রবন্ধের ওপর মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন ২৪ জন পেশাজীবী। সেমিনারে প্রধান অতিথি বলেন, বাংলাদেশ উন্নয়নে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে। গত ৭ থেকে ৮ বছরে মোট দেশজ উৎপাদন প্রবৃদ্ধি (জিডিপি) ৭ শতাংশের কাছাকাছি আছে। আমাদের মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আছে। কিন্তু বড় লোকরা আরও ধনী হয়েছে। সেই তুলনায় গরিবেরা উন্নতি করতে পারেনি। আরেকটি বিষয় হলো— বড় বড় প্রকল্পে প্রচুর অর্থ খরচ হয়েছে। এটা আগামীতে নতুন প্রজন্মের ভিতরে কি প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে, সেটা দেখার বিষয়।  মূল প্রবন্ধে ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, আমরা নিজের অধিকার অর্জন করব, অন্যের অধিকারে হাত দেব না। এসডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশের ৬৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার লাগবে। এই অর্থ সহায়তা পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। তার মতে, টেকসই উন্নয়নে ১৬৯টি লক্ষ্যমাত্রাকে সমন্বয় করতে হবে। দেশের বাস্তবতা এবং আন্তর্জাতিক বাস্তবতার প্রতি লক্ষ্য রাখতে হবে। সবাইকে নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে, কেউ যেন পিছিয়ে না থাকে। অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত বলেন, ৯ থেকে ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি দিয়েও কোনো লাভ হবে না, যদি প্রবৃদ্ধির বণ্টন ন্যায্যতা নিশ্চিত না হয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর