Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩৮

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা কমেছে

সংবাদ সম্মেলনে রানা দাশগুপ্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা কমেছে

হত্যা, গণধর্ষণ, মন্দিরে হামলা, প্রতিমা ভাঙচুর, দেশত্যাগে বাধ্য করার মতো অপরাধসহ দেশের ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘুদের ওপর সহিংসতা কমেছে। গত তিন বছরের তুলনায় গত বছর এ হার কম ছিল। ২০১৮ সালে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে ৮০৬টি, যা ২০১৬ সালে ছিল ১ হাজার ৪৭১টি।

গতকাল রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ।

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠন করেন। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন, নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সব রাজনৈতিক দল ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রশংসনীয় ভূমিকায় এবারের নির্বাচনের আগে ও পরে সেই দুঃসহ অভিজ্ঞতার পুনরাবৃত্তি ঘটেনি।’ ফেনীর সোনাগাজী, ঠাকুরগাঁও সদর, রাঙামাটির লংগদু, বাঘাইছড়িতে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলোকে তিনি বিচ্ছিন্ন হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ২০১৮ সালে এ দেশের সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। ২০১৬ সালে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ছিল ১ হাজার ৪৭১টি, ২০১৭ সালে ১ হাজার ৪টি আর গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ঘটনা এসে দাঁড়িয়েছে ৮০৬-এ। রানা দাশগুপ্ত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম, গণমাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্য ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিজস্ব তথ্যসূত্রের আলোকে গত তিন বছরে সংখ্যালঘুদের ওপর ঘটে যাওয়া ঘটনার পরিসংখ্যান তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ তার ইশতেহারে প্রথমবারের মতো সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক নির্মূলের পাশাপাশি সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধেও জিরো টলারেন্স অঙ্গীকার করেছে। আমরা বাস্তবে এর প্রতিফলন চাই।’ সংবাদ সম্মেলনের সভাপতি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার। আরও বক্তব্য দেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক নিমচন্দ্র ভৌমিক।


আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর