শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ আগস্ট, ২০১৯ ০১:৩৯

শোক দিবস উপলক্ষে ‘ডুজা’র আলোকচিত্র প্রদর্শনী

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

শোক দিবস উপলক্ষে  ‘ডুজা’র আলোকচিত্র প্রদর্শনী
বঙ্গবন্ধুর দুর্লভ ও ঐতিহাসিক ছবি নিয়ে ‘অমর কবির স্মৃতিগাথা’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে ডুজা -ফাইলফটো

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর দুর্লভ ও ঐতিহাসিক ছবি নিয়ে ‘অমর কবির স্মৃতিগাথা’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (ডুজা)।

গতকাল সকালে টিএসসিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান দিনব্যাপী এ আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে বঙ্গবন্ধু এবং স্বাধীনতাপূর্ব ও উত্তরকালে বাংলাদেশি ও বিদেশি পত্রিকাগুলোর ভূমিকা তুলে ধরা হয়। যেখানে তৎকালীন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পত্রিকায় মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেদন সচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এতে প্রায় দুই শতাধিক আলোকচিত্র স্থান পায়। প্রদর্শনীর উদ্বোধন শেষে উপাচার্য বলেন, বঙ্গবন্ধুর দুর্লভ ও ঐতিহাসিক ছবি সংগ্রহ করে অভিনব পদ্ধতিতে আলোকচিত্র প্রদর্শনী বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের অসাধারণ কৌশল।

এটির গুরুত্ব অনেক। ছবি কথা বলে। এ ছবি আমাদের ইতিহাস-ঐতিহ্য তুলে ধরে। এ ছবিগুলো দেখে আমরা ইতিহাসের সঙ্গে, জাতির জনকের জীবনী ও আদর্শের সঙ্গে পরিচিত হতে পারি।’ তিনি এ ধরনের আয়োজনের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিকে ধন্যবাদ জানান। এ সময় অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, ডুজার সভাপতি রায়হানুল ইসলাম আবির, সাধারণ সম্পাদক মাহদী আল মুহতাসিম, ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনসহ সমিতির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের আয়োজন সম্পর্কে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি রায়হানুল ইসলাম আবির বলেন, আমরা ডুজার পক্ষ থেকে প্রতি বছর ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে থাকি। এ বছর ওই সময়টিতে ঈদের ছুটি থাকায় দেরিতে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করতে হয়েছে। ডুজার সাধারণ সম্পাদক মাহদী আল মুহতাসিম (নিবিড়) বলেন, শোকদিবস স্মরণে সাংবাদিক সমিতি প্রতি বছর এ ধরনের আয়োজন করে। বিশেষ করে আমরা বঙ্গবন্ধুর গণমাধ্যম কেন্দ্রিক স্মৃতিগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করি। যাতে নতুন প্রজন্ম বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সম্পর্কে জানার সুযোগ পায়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর