শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:১১

বসুন্ধরায় ভারতীয় প্রকৌশল প্রদর্শনী

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘প্রবৃদ্ধির জন্য অংশীদার’ স্লোগানে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী ভারতীয় প্রকৌশল প্রদর্শনী (ইন্ডি বাংলাদেশ ২০২০)। প্রদর্শনীতে শতাধিক শীর্ষস্থানীয় ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ছাড়াও বেশকিছু বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান তাদের প্রযুক্তিপণ্য তুলে ধরছে। গতকাল আইসিসিবি’র গুলনকশা হলে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। এ সময় ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাশ, ভারতের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ উন্নয়ন সংস্থার (ইইপিসি) চেয়ারম্যান রভি সেহগাল, ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মুনতাকিম আশরাফ, ইইপিসি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মহেশ কে দেশাই, সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক সুরঞ্জন গুপ্তা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ইইপিসি এ প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। আয়োজনে ভারতীয় হাইকমিশন ছাড়াও সহযোগিতা করছে এফবিসিসিআই, ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (আইবিসিসিআই), বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্ডাস্ট্রি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিইআইওএ) এবং বাংলাদেশ ইলেকট্রিক্যাল মার্চেন্ডাইস মেন্যুফেকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিইএমএমএ)। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়ে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বিনিয়োগের সবগুলো নির্দেশক ইতিবাচক হওয়ায় বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ এখন আকর্ষণীয় নাম। ভারতের বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের প্রস্তাব দিয়েছে। বর্তমানে এখানে ভারতীয় বিনিয়োগ ৩ দশমিক ১১ বিলিয়ন ডলার। ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় সেখানকার বেসরকারি খাতের সঙ্গে অনেকগুলো বিনিয়োগ চুক্তি সই হয়। এতে অদূর ভবিষ্যতে ভারতীয় বিনিয়োগ ৯ বিলিয়ন ছাড়াবে বলে আশা করি। ভারতীয় বিনিয়োগ বাংলাদেশ থেকে ভারতে বহমুখী পণ্য রপ্তানিতে সহায়তা করবে। এতে দুই দেশের বাণিজ্য ঘাটতিও কমবে। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি দ্রুত এগোচ্ছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৮ দশমিক ১৫ শতাংশ। ২০৪১ সালে উন্নত বিশ্বের কাতারে দাঁড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আমার বিশ্বাস ইন্ডি বাংলাদেশ ২০২০ দুই দেশের বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নয়নের পাশাপাশি বিনিয়োগ, যৌথ প্রকল্প বাস্তবায়ন ও লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং খাতের প্রযুক্তি বিনিময়ে সহায়তা করবে। ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাশ বলেন, বাংলাদেশের বিস্ময়কর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি দেশটিকে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের আদর্শ স্থান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। ব্যবসার বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার সুযোগ রয়েছে। পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশের অবস্থান শীর্ষস্থানীয়। এ খাতে মেশিনারিজ সরবরাহের সুযোগ রয়েছে ভারতের। বাংলাদেশের ধর্মনিরপেক্ষ বন্ধু হিসেবে ভারত সবসময় পাশে আছে। প্রদর্শনী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত আইসিসিবি’র গুলনকশা ও পুষ্পগুচ্ছ হলে প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর