শিরোনাম
মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
চিড়িয়াখানায় নতুন অতিথি

মা হলো এরাবিয়ান ঘোড়া পার্বতী

মোস্তফা কাজল

মা হলো এরাবিয়ান ঘোড়া পার্বতী

রাজধানীর জাতীয় চিড়িয়াখানায় মা হয়েছে এরাবিয়ান ঘোড়া পার্বতী। গতকাল ভোরে ঘোড়া বেষ্টনির মধ্যে এ ফুটফুটে বাচ্চার জন্ম হয়। নতুন অতিথির আগমনে সংশ্লিষ্টদের মধ্যে বইছে আনন্দের বন্যা।

জাতীয় চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. মো. নুরুল ইসলাম জানান, নতুন অতিথির নাম ১/২ দিনের মধ্যে রাখা হবে। তিনি বলেন, ‘দুর্লভ এরাবিয়ান হর্স বাচ্চা দিয়েছে। আমরা গুরুত্ব দিয়ে নতুন অতিথির দেখভাল করছি। বর্তমানে মা পার্বতী ও সদ্যজাত বাচ্চাটি ভালো আছে। মায়ের দুধ পান করে এটি আপন মনে ঘুরে বেড়াচ্ছে।’

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মানব সভ্যতার ইতিহাস অনুযায়ী ঘোড়া এবং মানুষের মধ্যে আদিকাল থেকেই সহজাত বন্ধুত্বসুলভ সম্পর্ক। ঘোড়া মানুষের বিশ্বস্ত সহচর। আজকের মতো আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থা যখন ছিল না, তখন দূরযাত্রার জন্য ঘোড়াই ছিল একমাত্র বাহন। পণ্য পরিবহন ও কৃষিক্ষেত্রেও সকালে   ঘোড়ার ব্যবহার হতো। তবে ঘোড়া সবচেয়ে আলোচিত থেকেছে যুদ্ধক্ষেত্রে। কত সাহসী যোদ্ধার কত  তেজস্বী ঘোড়া যে রাজ্যজয়ের সঙ্গী হয়েছে- তার ইয়ত্তা নেই। এজন্যই ইতিহাসে ঘোড়া বিশেষ স্থান দখল করে আছে।

যে গুণাবলীর কারণে সাধারণত মানুষ ঘোড়া পছন্দ করে সেগুলো হলো- গতি, শক্তিমত্তা, উদ্যমতা, তেজ, আনুগত্য, বুদ্ধিমত্তা ইত্যাদি। আরও একটি কারণে মানুষ ঘোড়া পছন্দ করে সেটি হচ্ছে- ‘সৌন্দর্য’।  ঘোড়া পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর প্রাণিগুলোর একটি। সব ঘোড়াই কমবেশি সুন্দর। তবে কিছু ঘোড়া  দেখলে সত্যিই অবাক বিস্ময় নিয়ে তাকিয়ে থাকতে হয়। রূপকথার পঙ্খীরাজ হয়তো নয়, তবে তার চেয়েও কম সুন্দর নয় এসব ঘোড়া। ভারত, পাকিস্তান, রাশিয়া ও আফ্রিকার বন-জঙ্গলে ঘোড়া পাওয়া যায়। এ প্রাণীর প্রধান খাদ্য শস্যদানা, ঘাস, ফল ও গাছের পাতা। প্রাণীটি ২০ থেকে ২২ বছর  বেঁচে থাকে। ১১ থেকে ১২ মাস গর্ভধারণের পর একটি বাচ্চার জন্ম দেয়। বর্তমানে রাজধানীর চিড়িয়াখানায় পাঁচটি ঘোড়া আছে।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর