শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:১২

ধরা যাচ্ছে না গডফাদারদের

খুলনায় মাদক ও জাল টাকার নেটওয়ার্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

ধরা যাচ্ছে না গডফাদারদের

খুলনায় মাদক ব্যবসা, অপহরণ, চাঁদাবাজি ও জাল টাকার নেটওয়ার্ক আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। একের পর এক অপরাধ সংঘটিত হলেও পুলিশ নেপথ্যের গডফাদারদের গ্রেফতার করতে পারেনি। এ অবস্থায় কথিত ‘বড় ভাইদের’ ছত্রচ্ছায়ায় বিভিন্ন এলাকায় গ্রুপ করে বখাটে যুবকরা অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছে। জানা যায়, ২০১৯ সালের ২১ জানুয়ারি খুলনার শেখপাড়ায় ইয়াবাসহ গ্রেফতার হন জুয়েল হাসান আরমানসহ তার তিন সহযোগী। ওই ঘটনায় সোনাডাঙ্গা থানায় মামলা হলেও ইয়াবা ব্যবসা বন্ধ হয়নি। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি চাঁদার দাবিতে এক ব্যবসায়ীকে অপহরণের ঘটনায় সেই জুয়েল হাসান আরমানসহ তার দুই সহযোগী আবারও গ্রেফতার হন। জিজ্ঞাসাবাদে তারা নগরীর নিরালা এলাকার জনৈক ‘বড় ভাই’য়ের নির্দেশে অপহরণ ও মাদক ব্যবসার কথা স্বীকার করলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি। গতকাল ব্যবসায়ীকে অপহরণ মামলায় আরমানসহ তিনজনের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। এদিকে ২২ ফেব্রুয়ারি খুলনার জিরো পয়েন্ট থেকে ৩৯ লাখ টাকার জাল নোটসহ এস এম মামুন (৪২) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশ। এর আগে খুলনার খালিশপুর ও কয়রা উপজেলা থেকে জাল নোটসহ গ্রেফতার হন আরও দুজন। কিন্তু নেপথ্যের গডফাদাররা রয়ে গেছেন ধরাছোঁয়ার বাইরে। সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)-এর জেলা সম্পাদক অ্যাডভোকেট কুদরত-ই খুদা বলেন, এ ধরনের অপরাধীরা অধিকাংশ ক্ষেত্রে রাজনৈতিক ছত্রচ্ছায়ায় থাকেন। অপরাধীদের পৃষ্ঠপোষকদের আইনের আওতায় আনতে না পারলে অপরাধ নির্মূল করা সম্ভব নয়। তবে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবির বলেন, শক্ত হাতেই অপরাধীদের নির্মূল করা হবে। কোনো গডফাদার বা কথিত বড় ভাইকে ছাড় দেওয়া হবে না। এ ব্যাপারে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর