শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ ২১:৫০

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর প্রথমবার নলচরে যাচ্ছে বিদ্যুৎ, আত্মহারা গ্রামবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল :

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর প্রথমবার নলচরে যাচ্ছে বিদ্যুৎ, আত্মহারা গ্রামবাসী

বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই ইউনিয়নের নলচর গ্রামে খুশির জোয়ার বইছে। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ওই জনপদে দেয়া হচ্ছে বৈদ্যুতিক সংযোগ। বিদ্যুৎ আসার খবরে ঘরে ঘরে বিরাজ করছে আনন্দের হাওয়া। 

আড়িয়াল খাঁ ও কালাদবদর নদী ঘেরা ছোট্ট নলচর গ্রামে প্রায় ৬ হাজার মানুষের বসবাস। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার ৪৮ বছর পর এই প্রথমবারের বিদ্যুৎ যাচ্ছে ওই গ্রামে। এরই মাঝে পুরো গ্রাম জুড়ে বসেছে বৈদ্যুতিক খুঁটি। আর কয়েক দিন পরই বৈদ্যুতিক খুঁটি হয়ে বাড়ি বাড়ি যাবে বিদ্যুৎ। আলোকিত হবে বিচ্ছিন্ন নলচর গ্রাম। আসন্ন দিনের কথা ভেবে আনন্দিত ওই গ্রামের শিশু থেকে শুরু করে নারী-পুরুষ, বয়স্ক সবাই। 

ওই গ্রামের প্রায় ৭০ ভাগ মানুষ এখনও নির্ভরশীল সৌর বিদ্যুতে। এই গ্রামের মানুষের সরাসরি বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার প্রত্যাশা দীর্ঘদিনের। বিদ্যুৎ সংযোগ পেলে নলচর গ্রামের মানুষের শিক্ষা, চিকিৎসা ও চাষাবাদ ব্যবসা-বাণিজ্যসহ সব ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব পরিবর্তন হবে আশা স্থানীয়দের। 

রফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি বলেন, বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় এই গ্রামে একটা টেলিভিশনও নেই। বিদ্যুতের অভাবে মোবাইল টাওয়ার না থাকায় নেটওয়ার্ক সমস্যায় পড়তে হয়। বিদ্যুৎ সংযোগ পেলে নলচরের মানুষ প্রযুক্তি ও আধুনিক বাংলাদেশের সাথে সংযুক্ত হতে পারবে। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর আর্থিক উন্নয়ন হবে।  

বরিশাল-৫ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম বলেন, স্বাধীনতার ৪৮ বছরে তিনিই প্রথম সংসদ সদস্য ওই গ্রামে গিয়েছেন। সেখানে উপজেলা চেয়ারম্যানও কখনো যাননি। তিনি যখন গিয়েছেন, তখন এলাকার লোকজনই তাকে এসব কথা শুনিয়েছে। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর বর্তমান সরকার আধুনিক সুযোগ-সুবিধা বঞ্চিত ওই গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার জন্য ইতিমধ্যে বৈদ্যুতিক খুঁটি বসিয়েছে। ইতিমধ্যে কিছু সড়কের পাশের বৈদ্যুতিক খুঁটিতে সৌর বাতির ব্যবস্থা করা হয়েছে। আগামী ২/৩ মাসের মধ্যে ওই গ্রামের সবাই বিদ্যুতের সুবিধা পাবেন বলে তিনি জানান।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য