শিরোনাম
প্রকাশ : ৬ আগস্ট, ২০২০ ১৫:৫৯
আপডেট : ৬ আগস্ট, ২০২০ ১৬:০১

নেত্রকোনায় ট্রলার ডুবির ঘটনায় তদন্ত কমিটি

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নেত্রকোনায় ট্রলার ডুবির ঘটনায় তদন্ত কমিটি
ফাইল ছবি

নেত্রকোনার মদনে পর্যটনবাহী ট্রলার ডুবে ১৮ জন নিহতের ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বুলবুল আহমেদকে প্রধান করে চার সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম। 

কমিটিকে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কমিটির বাকি সদস্যরা হলেন মদন থানার ওসি, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এবং ফায়ার সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা। 

এদিকে গতকাল বুধবার (৫ আগস্ট)  নিখোঁজ হওয়াদের মধ্যে রাকিব (২০) নামের একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে আজ বৃহস্পতিবার সকালে। হাওরের পানিতে সকালে মরদেহটি ভেসে উঠলে স্থানীয়রা দেখে তা উদ্ধার করে, থানায় খবর দেন। রাকিব ময়মনসিংহ সদরের চরভবানীপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে।

গতকাল বুধবার দুপুরে ৪৮ পর্যটক নিয়ে ইঞ্জিনচালিত ছোট নৌকায় করে মদন উচিতপুর ঘাট থেকে রাজালীকান্দার রামদীঘা বিলে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় শিকার হয় নৌকাটি।  

নৌকায় ধারণক্ষমতার চেয়ে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাইয়ের কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানান নেত্রকোনা ফায়ার সার্ভিসের অফিসার খানে আলম।

তিনি আরও জানান, নৌকায় থাকা তরুণরা আনন্দ করতে থাকলে প্রচণ্ড ঢেউ আর বাতাসে নৌকাটি কাত হয়ে উল্টে যায়। এতে থাকা ৪৮ জন যাত্রীই পানিতে পড়ে যান। তাদের মধ্যে ৩০ জন সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও ১৮ জন নিখোঁজ হন। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা এসে যৌথ প্রচেষ্টায় ১৭ জনের মরদেহ উদ্ধার করে। একজনকে পাওয়া যায়নি তখন। পরবর্তীতে আজ বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল থেকে ভেসে উঠলে স্থানীয়রা তার মরদেহ দেখতে পান। পরে এলাকাবাসী এই নিখোঁজ যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে।

বিডি-প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ
 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর