শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:৫৬
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:৩৪
প্রিন্ট করুন printer

ইছামতি নদীর বুকে ধানসহ বিভিন্ন ফসলের চাষ

দিনাজপুর প্রতিনিধি

ইছামতি নদীর বুকে ধানসহ বিভিন্ন ফসলের চাষ

শুষ্ক এ মওসুমে নদীর বুকে চলছে ধান চাষ। আবার কোথাও চলছে বীজতলা নয়তো অন্য ফসল চাষের জমি প্রস্তুতকরন। এই অবস্থা দিনাজপুরের চিরিরবন্দর ও খানসামার উপর দিয়ে প্রবাহিত ইছামতি নদীর বুকে। নদীর কোথাও পানি আছে আবার কোথাও নেই। কোথাও খাল নয়তো ডাঙ্গা। 
তাই কালের বির্বতনে ও নদী সংস্কারের অভাবে চিরিরবন্দরের উপর দিয়ে প্রবাহিত ইছামতি নদীর বুকে বিভিন্ন স্থানে চলছে ধানসহ বিভিন্ন ফসলের চাষ। এতে প্রবাহের গতিপথের প্রস্থ কমে গেছে বিভিন্ন জায়গায়। পানি না থাকায় প্রবাহিত নদীর বিভিন্ন স্থানে চলছে ধান, ইরিবোরো ধানের বীজতলা, ভুট্টা, মরিচসহ বিভিন্ন ফসলের আবাদ।

শুষ্ক মৌসুমের আগেই নদী শুকিয়ে যাওয়ার ফলে হারিয়ে যাচ্ছে অধিকাংশ প্রজাতির মাছ ও জলজ প্রানী। কখনও নদীর অস্থিতই সংকটে পড়ে। আবার নদীর পানি ধারন ক্ষমতা কমে যাওয়ায় বর্ষাকালে দেখা দেয় কখনও বন্যা।

চিরিরবন্দরের নশরতপুর গ্রামের প্রবীণ সাংবাদিক এমএ কারী(৮০) জানান, তৎকালীন জমিদাররা তাদের জামিদারী তদারককালে অত্রাঞ্চলের মানুষের নদীপথে চলাচলের সুবিধার্থে ইছামতি নদী দিয়ে যাতায়াত করত। এলাকার প্রজাদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য এ নদীটি খনন করা হয়েছিল। কিন্তু কালের বির্বতনে নদীপথের গুরুত্ব কমার পাশাপাশি পলিমাটি জমে প্রায় সমতলে পরিণত হয়েছে। বর্ষার সময়ে দেখা যায় নদীর চেহারা এবং শুষ্ক মওসুমে নদী জায়গায় শুকিয়ে গেলে ধানসহ হয় বিভিন্ন ফসলের চাষ।   

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর