শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:১৩
প্রিন্ট করুন printer

মাদারীপুরে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি

মাদারীপুরে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার আমগ্রামে ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার রাত ২টার দিকে ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে পরিবারের লোকজন। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত চিরঞ্জিত নামে এক যুবক। 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার আমগ্রামের নিজ বাড়ি থেকে গত ১২ এপ্রিল কৌশলে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ওই শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে নিয়ে যায় প্রতিবেশী কৃষ্ণ মোড়লের ছেলে চিরঞ্জিত মোড়ল (২৫)। পরে একটি ঘরে আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ ওই স্কুলছাত্রীর। এ সময় তাকে মারধরও করা হয়। 

সর্বশেষ শুক্রবার রাত ১০টার দিকে কিশোরীর মুখ ও হাত-পা বেঁধে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে হত্যার উদ্দেশ্যে বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে নিয়ে যাওয়া হয়। শিক্ষার্থীর ধস্তাধস্তির আওয়াজ শুনে পরিবারের লোকজন এগিয়ে আসলে পালিয়ে যায় চিরঞ্জিতসহ তার সহযোগীরা। পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রাতে ভর্তি করা হয় মাদারীপুর সদর হাসপাতালে। শনিবার সকালে হাসপাতালে প্রাথমিক মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

ওই শিক্ষার্থীর মা বলেন, মেয়েকে অপহরণের পর ধর্ষণ করে চিরঞ্জিত। পরে ঘটনা ধামাচাপা দিতে হত্যা করে লাশ গুম করার পরিকল্পনা করা হয়। মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. মো. নুরুল ইসলাম বলেন, রাত দুইটার দিকে এক স্কুলছাত্রীকে তার পরিবারের লোকজন হাসপাতালে নিয়ে আসে। তার প্রাথমিক মেডিকেল পরীক্ষা করা হয়েছে। ওই শিক্ষার্থী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 

রাজৈর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ সাদী বলেন, শিক্ষার্থী অপহরণ ও ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এর আগে শিক্ষার্থী নিখোঁজ হবার পর পরিবারের পক্ষ থেকে জিডি করা হয়েছিল। তারপর থেকেই পুলিশ বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করে। শুক্রবার রাতে নিখোঁজ শিক্ষার্থী উদ্ধারের পর হাসপাতালে ভর্তি করে পরিবারের লোকজন। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই বিভাগের আরও খবর