শিরোনাম
২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ১৮:৪৭

চাঁদপুরে জাটকা ধরার দায়ে ১৫ জেলের কারাদণ্ড

চাঁদপুর প্রতিনিধি

চাঁদপুরে জাটকা ধরার দায়ে ১৫ জেলের কারাদণ্ড

ভ্রাম্যমান আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত জেলেরা

চাঁদপুরে মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকায় অপারেশন চালিয়ে নিষিদ্ধ জালে জাটকা ধরার দায়ে ১৫ জেলেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত ভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে চাঁদপুর কোস্টগার্ড স্টেশনের জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহজাহান ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

বুধবার সকালে চাঁদপুর সদর উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে একমাস বিনাশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জেলে মতলব উত্তর উপজেলার মো. রুবেল সর্দার (৩০)। ১৫ দিন বিনাশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলো-  মতলব উত্তর উপজেলার মো. হুমায়ুন মৃধা (৩৭), আক্তার হোসেন (২৫), ইয়াকুব ব্যাপারী (৪৫), ইয়াজল চোকদার (৪৩), সাইদুল রহমান (২৪), আরিফুল ইসলাম (২৮), লিটন বর্মন (৪৩), মো. হোসেন (২২), আবুল হোসেন (৪২), মনির হোসেন (৪৮), ছৈয়দ হোসেন (৩৫), মো. সাদেক (৩৫), মাদব চন্দ্র বর্মন (৩৮) ও  আলী নুর (২২)।

সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান বলেন, মঙ্গলবার বিকাল হতে রাত পর্যন্ত ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় ৩টি স্পিডবোট নিয়ে পদ্মা-মেঘনা নদীর মোহনা মিনি কক্সবাজার, রাজরাজেশ্বর, মোহনপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় কাচিকাটা স্থান থেকে জাটকা ধরা অবস্থায় ১৫ জেলেকে আটক করা হয়। একই সময় ১ লক্ষ মিটার কারেন্টজাল, ৫টি বেহুন্দি জাল, ৫ কেজি জাটকা ও একটি মাছ ধরার নৌকা আটক করা হয়। অভিযান শেষে রাতেই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জেলেদের কারাদণ্ড এবং জব্দকৃত জাল চাঁদপুর কোস্টগার্ড স্টেশনে নিয়ে আগুনে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়। আর জব্দকৃত জাটকা দুস্থদের মাঝে বিতরণ ও নৌকাটি কোস্টগার্ড হেফাজতে নেওয়া হয়।

অভিযানে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মো. জামিল হোসেন,  মো. আশরাফুল ইসলাম, কোস্টগার্ড স্টেশনে চিফ পেটি অফিসার মো. শফিকুল ইসলাম, নৌ পুলিশের এসআই মো. মাইনুলসহ কোস্টগার্ড ও নৌ পুলিশের সদস্যরা সহযোগিতা করেন।

বিডিপ্রতিদিন/কবিরুল

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর