শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪৮

ভিডিওতে বিমানঘাঁটির ধ্বংসস্তূপের চিত্র

ইরানে বিক্ষোভ অব্যাহত

সাইফ ইমন

ইরানে বিক্ষোভ অব্যাহত
ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত বিমান ঘাঁটির স্থাপনা ছবি : ভিডিও ফুটেজ

৮ জানুয়ারি ১৭৬ আরোহীসহ ইউক্রেনীয় বিমান ভূপাতিত করায় ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভের দ্বিতীয় দিন পার হয়েছে গতকাল। বিমান যাত্রীদের অধিকাংশ ছিলেন ইরান ও কানাডার নাগরিক। দুই মার্কিন বিমানঘাঁটিতে হামলার সময় একটি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ওই বিমানটি বিধ্বস্ত হলে আরোহীর সবাই প্রাণ হারান। ইরানের বড় বড় শহরে চলমান বিক্ষোভ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে দৃশ্যত উল্লসিত করছে। তিনি বলেছেন, বিক্ষোভ ইরানকে এখন শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় ফেলে দিয়েছে।

৮ জানুয়ারি ভোরে ইরাকের আল-আসাদ ও ইরবিলে অবস্থিত দুটি মার্কিন বিমান ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। ওই হামলায় মার্কিন বিমান ঘাঁটির যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল সিএনএন তার প্রথম ভিডিও প্রকাশ করেছে। তেহরানের দাবি, এতে ৮০ মার্কিন সেনা নিহত ও ২০০ জন আহত হয়। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট  ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, তার দেশের একজন সেনাও নিহত হয়নি, সামান্য ক্ষতি হয়েছে মাত্র। এরপর ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় আল আসাদ বিমান ঘাঁটির ক্ষয়ক্ষতির প্রথম ভিডিও প্রকাশ করে সিএনএন। ভিডিওতে দেখা যায়, ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় মার্কিন সেনাদের ড্রয়িং রুম ও বাসস্থান ধ্বংস হয়ে গেছে। হামলার পর ভবনগুলোতে আগুন ধরে যায়। প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরান প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে ঘাঁটির মার্কিন সেনাদের অংশে হামলা চালায়। এতে ওই ঘাঁটির প্রায় এক-চতুর্থাংশ এলাকা ধ্বংস হয়েছে। ঘাঁটির মার্কিন সেনা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল স্টাসি কলেমস্যান দাবি করেন, হামলার বিষয়ে আগাম সতর্কবার্তা পেয়ে তারা বাংকারে লুকিয়েছিলেন। তবে হামলায় কেউ হতাহত হয়েছেন কি-না তা ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করেনি সিএনএন।

‘স্পাইক’ কিনছে যুক্তরাষ্ট্র : ইসরায়েলে নির্মিত ‘স্পাইক’ ক্ষেপণাস্ত্র কিনছে যুক্তরাষ্ট্র! লক্ষ্যবস্তুতে নিখুঁতভাবে আঘাত হানতে সক্ষম এই ক্ষেপণাস্ত্রকে যুক্তরাষ্ট্র তার শক্তিশালী অ্যাটাক হেলিকপ্টারগুলোয় সংযুক্ত করতে চায়। ইসরায়েলি পত্রিকা ‘জেরুজালেম পোস্ট’ জানায়, ভবিষ্যতের অভিযানগুলোয় সাফল্য আরও নিশ্চিত করতে অস্ত্র উন্নয়নের এই পদক্ষেপ নেয় যুক্তরাষ্ট্র। ইতিমধ্যে এটি কেনার বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের এপাচি হেলিকপ্টারগুলো থেকে ১২ কিলোমিটার দূরের টার্গেট ধ্বংস করা সম্ভব। তবে এতে সন্তুষ্ট নয় দেশটি। যুক্তরাষ্ট্র এখন হেলিকপ্টার থেকে আরও দূরের টার্গেট যেমন, শত্রু ট্যাংক, বাংকার ও সেনা দলের ওপর আঘাত হানার সক্ষমতা চায়। স্পাইক হচ্ছে ইসরায়েলের পঞ্চম প্রজন্মের ইলেকট্রো-অপটিক্যাল ক্ষেপণাস্ত্র যার আওতা ২৫ কিলোমিটারেরও বেশি। রাফায়েল প্রতিরক্ষা সিস্টেমের উদ্ভাবন ও কয়েক ধাপে এর উন্নয়ন করেছে ইসরায়েল। এ বছর দেশটি এই মিসাইলের বেশ কয়েকটি সফল পরীক্ষা চালিয়েছে। হেলিকপ্টার  থেকে চালানো পরীক্ষাগুলোও সফল হয়েছে। এ ছাড়া ৯টি ক্ষেপণাস্ত্র সফলভাবে টার্গেটে হামলা করেছে।

ট্রাম্পের টুইট : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ফারসি ভাষায় টুইট করেন, ‘বিক্ষোভকারীদের হত্যা করো না’। বিক্ষোভকারীরা ইরানের বড় বড় শহরে বিক্ষোভ করার সময় শাসকের পদত্যাগ দাবিতে স্লোগান দিচ্ছে। এ বিষয়ে টুইট বার্তায় ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার অভিমত হলো, নিষেধাজ্ঞা ও সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ইরানকে শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় ফেলেছে, এতে তারা (যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে) আলোচনায় বসতে বাধ্য হবে। তিনি বলেন, কিন্তু তাতে আমার কিছুই আসে যায় না। আলোচনায় বসার বিষয়টি ইরানের ওপর নির্ভর করছে, কিন্তু তারা পারমাণবিক অস্ত্রের অধিকারী হতে পারবে না।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর