শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:০৬

দিল্লিতে হোঁচট

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে কৌশল বদলাতে চায় বিজেপি

কলকাতা প্রতিনিধি

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে কৌশল বদলাতে চায় বিজেপি

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে (সিএএ)-এর সমর্থনে জোরদার প্রচারণা চালালেও সম্প্রতি দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফল করতে পারেনি ভারতের কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। তাই ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে প্রচারণায়  রণকৌশল বদলাতে চায় গেরুয়া শিবির।

কয়েক বছর আগেই বিজেপির তৎকালীন সভাপতি অমিত শাহ ঘোষণা দিয়েছিলেন বাংলা ও ওড়িষ্যা জয় করতে পারলে, তবেই তাদের জয়ের বৃত্ত সম্পন্ন হবে। তাই তাদের প্রধান টার্গেট বাংলা জয়। তাই বাংলা জয়ে নতুন করে ঝাঁপিয়ে পড়তে চাইছে গেরুয়া শিবির। তবে বিধানসভার নির্বাচনই নয়, আগামী দুই মাসের মধ্যে রাজ্যের প্রায় শতাধিক পুরসভাতে নির্বাচন। সেই নির্বাচনেও সেই পরিবর্তনের ফলও দেখতে চায় মোদির দল। বিজেপির এক শীর্ষস্থানীয় নেতা জানান ‘সিএএ’এর সমর্থনে আক্রমণাত্মক প্রচারণার কারণে দিল্লি হাত ছাড়া হয়েছে তাদের। এমনকি বাংলাতেও তারা এই আইনের সমর্থনে অল-আউট ঝাঁপাতে চায়। আবার মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস এই আইনের বিরোধিতা করে রাজ্যজুড়ে ক্রমাগত প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে বোঝাই যাচ্ছে নির্বাচনে একটা বড় ফ্যাক্টর হতে যাচ্ছে সিএএ।

রাজ্য বিজেপির এক নেতা জানান, আমরা কেবল সিএএ’এর ভিত্তি করেই প্রচারণা চালাতে চাই না। এটা ঠিক যে রাজ্যের কিছু অংশে এর সুফল পাওয়া যাবে কিন্তু বাংলা জয় করতে হলে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন ব্যর্থতা ও দুর্নীতির কথাও মানুষের সামনে তুলে ধরতে হবে। কারণ রাজ্যের মানুষ দুর্নীতি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডসহ বিভিন্ন ইস্যুতে তিতিবিরক্ত হয়ে গেছে। তাদের এই বিষয়গুলো আমাদের জানাতে হবে এবং মমতা ব্যানার্জি ফের ক্ষমতায় আসলে রাজ্যের মানুষকে এই অসুবিধার মধ্যেই যে যেতে হবে সেটাও প্রতিদিন মানুষকে মনে করিয়ে দিতে হবে।’ আর বিজেপি ক্ষমতায় এলে রাজ্যের মানুষ কি কি সুবিধা পাবে তাও নির্বাচনের অন্তত এক বছর আগে থাকতেই তাদের বোঝানোর কাজ শুরু করে দিতে হবে।


আপনার মন্তব্য