শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ মে, ২০২১ ১৪:৩১
আপডেট : ১৬ মে, ২০২১ ১৪:৩৩
প্রিন্ট করুন printer

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ রুখতে পশ্চিমবঙ্গে কঠোর নিষেধাজ্ঞা

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ রুখতে পশ্চিমবঙ্গে কঠোর নিষেধাজ্ঞা
ফাইল ছবি
Google News

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ রুখতে আরও কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার। রাজ্য জুড়ে আজ রবিবার সকাল ৬টা থেকে ৩০ মে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আগামী ১৫ দিন কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। 

সৎকারে ২০ জনের বেশি জমায়েত ও বিয়ে বাড়িতে ৫০ জনের বেশি জমায়েতের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকছে। ইতিমধ্যে গত এক সপ্তাহ ধরে সমস্ত লোকাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ আছে। এবার মেট্রো, বাস, ফেরিও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জরুরি পরিষেবা ছাড়া সরকারি-বেসরকারি দপ্তর সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে। ব্যাঙ্ক ও অন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত। 

এছাড়াও জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ব্যক্তিগত গাড়ি, ট্যাক্সি, অটো পরিষেবাও বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকছে সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র, পার্ক, চিড়িয়াখানা, অভয়ারণ্য। এই সময়ের মধ্যে রাজ্যের সমস্ত শপিং মল, বিউটি পার্লার সিনেমা হল, রেস্তোঁরা ও বার, স্পোর্টস কমপ্লেক্স, জিম, স্পা, সমস্ত ধরনের শ্যুটিং, সুইমিং পুল, মদের দোকান বন্ধ থাকবে। 

বাজার, হাট, খুচরো দোকান খোলা থাকবে সকাল ৭ টা থেকে ১০টা, মিষ্টি দোকান সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা, সোনার দোকান খোলা থাকবে বেলা ১২টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত। সমস্ত ধরনের রাজনৈতিক সমাবেশ, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা, বিনোদনমূলক জমায়েতও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। 

জরুরি কারণ ছাড়া রাত ৯টার পর থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত যানবাহন, রাস্তায় বের হওয়ার ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। যদিও স্বাস্থ্য, দুধ, যদিও মেডিকেল, চশমার দোকান, টিকাকরণ কেন্দ্র, বিদুৎ, ফায়ার সার্ভিস, গণমাধ্যমসহ সমস্ত জরুরি পরিষেবা চালু রাখা হবে।

রাজ্যটির মুখ্যসচিব আলাপন ব্যনার্জি গতকাল শনিবার সংবাদ সম্মেলনে এই বিধিনিষেধ জারির কথা জানিয়ে বলেন, 'করোনা পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধগুলিকে আরও কঠোর করা হয়েছে যেন জনগণের  স্বাস্থ্য সুরক্ষিত থাকে প্রাণহানি ও সংক্রমণ কমে। বিধিনিষেধ ভাঙলে বিপর্যয় মোকাবিলা আইনে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান মুখ্যসচিব।' 

এই বিধিনিষেধ কঠোরভাবে পালন করাতে আজ রবিবার সকাল থেকে কলকাতাসহ রাজ্যের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা, মোড়গুলিতে কড়া নজরদারি চালাচ্ছে পুলিশ। বাইরে বেরনোর উপযুক্ত নথিপত্র না থাকলে আটক করা হচ্ছে গাড়ি, বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। 

উল্লেখ্য, গত ২৪ ঘন্টায় পশ্চিমবঙ্গে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৪৪ জনের, এই ভাইরাসে রাজ্যে একদিনে এটাই সর্বোচ্চ মৃত্যু। সবমিলিয়ে রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১২,৯৯৩ জন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে মেডিকেল বুলেটিন অনুযায়ী, ভারতে করোনায় সংক্রমিতের সংখ্যা ২ কোটি ৪৪ লাখেরও বেশি, মৃত ২ লাখ ৬৬ হাজারের বেশি।

কেবল পশ্চিমবঙ্গই নয়, করোনা সংক্রমণ রুখতে ইতিমধ্যেই দিল্লি, জম্মু-কাশ্মীর, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, রাজস্থান, ঝাড়খন্ড, তেলেঙ্গানা, ছত্তিশগড়, ওড়িষ্যা, কেরালা, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, নাগাল্যান্ড, পডুচেরিসহ একাধিক রাজ্যে বিধিনিষেধ কঠোর করা হয়েছে, কোথাও আবার জারি করা হয়েছে কারফিউ। 

 


বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির

এই বিভাগের আরও খবর