শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ মে, ২০১৯ ২২:৫২

ভোগাবে গরম আরও ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস

নিজস্ব প্রতিবেদক

এবার দৈনিক প্রায় ১৫ ঘণ্টা পানাহার বন্ধের মধ্য দিয়ে আত্মশুদ্ধির মাস রমজান পালন করবেন দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। দীর্ঘ সময়ের এই রোজায় চোখ রাঙাচ্ছে গ্রীষ্মের তীব্র গরম। এ মাসে দেশের কোথাও তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছাড়িয়ে যেতে পারে। দেশের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি তীব্র এবং দুয়েকটি মৃদু থেকে মাঝারি তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। সেই  সঙ্গে রয়েছে একাধিক কালবৈশাখীসহ আরেকটি ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা। আজ ১৪ ঘণ্টা ৪২ মিনিট পানাহার বন্ধের মধ্য দিয়ে সংযম আর আত্মশুদ্ধির মাসের প্রথম দিনটি পার করছেন রোজদাররা। রোজা ৩০টি হলে আগামী ৫ জুন শেষ দিনের রোজা হবে ১৫ ঘণ্টা ৮ মিনিট। দীর্ঘ সময়ের রোজায় রোজাদারদের ভোগান্তি বাড়াবে গ্রীষ্মের গরম। ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে বৃষ্টিপাত হওয়ায় তাপমাত্রা কিছুটা কমলেও সেটা আবার বাড়তে শুরু করেছে।

গতকাল বেলা ৩টা পর্যন্ত দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল মোংলায় ৩৭ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ৩টার পর এই তাপমাত্রা আরও এক-দুই ডিগ্রি বাড়ে বলে জানান আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন। চলতি মাসের দীর্ঘমেয়াদি আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ মাসে দেশের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি তীব্র তাপপ্রবাহ ও দুয়েকটি মৃদু থেকে মাঝারি তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। অর্থাৎ তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়াতে পারে। আরিফ হোসেন বলেন, এপ্রিল-মে মাসেই তাপমাত্রা সবচেয়ে বেশি থাকে। আগামী এক সপ্তাহে সিলেট ছাড়া দেশের অন্যান্য এলাকায় বৃষ্টিপাতের তেমন সম্ভাবনা নেই। এতে তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে। বৃষ্টি না হলে গরম কমবে না। এদিকে মে মাসেই আরও একটি ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানতে পারে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বঙ্গোপসাগরে আরও দুটি নিম্নচাপ তৈরি হতে পারে। এর মধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ  নেওয়ার শঙ্কা রয়েছে। এবারের ঘূর্ণিঝড়টির নাম দেওয়া হয়েছে ‘বায়ু’। নামটি ভারতের দেওয়া। এ ছাড়া দেশের উত্তর থেকে মধ্যাঞ্চল পর্যন্ত দুই থেকে তিন দিন মাঝারি ও তীব্র কালবৈশাখী আঘাত হানতে পারে। দেশের অন্য এলাকায় শিলাবৃষ্টিসহ তিন-চার দিন হালকা থেকে মাঝারি কালবৈশাখী হতে পারে।


আপনার মন্তব্য