Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৮ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ মে, ২০১৯ ০১:৪৮

নুসরাত হত্যা মামলা

সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে শাকিলের জবানবন্দি

ফেনী প্রতিনিধি

সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে শাকিলের জবানবন্দি

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত মহিউদ্দিন শাকিল হত্যার সঙ্গে নিজের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। গতকাল দুপুরে ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসেনের আদালতে শাকিল এই জবানবন্দি দেন। পিবিআই সূত্রে জানা যায়, মাদ্রাসার সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে নুসরাতের গায়ে আগুন দেওয়ার সময় আসামি মহিউদ্দিন শাকিল গেটের পাহারায় নিয়োজিত ছিলেন। নুসরাতের গায়ে আগুন দেওয়ার পর তার পাহারা দেওয়া অবস্থায় আসামিরা পালিয়ে যায়। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টার জবানবন্দিতে আসামির হত্যায় সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেন। এর আগে ২ মে আসামি মহিউদ্দিন শাকিলকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। ৬ এপ্রিল সকালে নুসরাত আলিম শ্রেণির আরবি প্রথম পত্র পরীক্ষা দিতে গেলে মাদ্রাসায় দুর্বৃত্তরা তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় দগ্ধ নুসরাত ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পাঁচ দিন পর ১০ এপ্রিল রাতে মারা যায়। এ ঘটনায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলাকে প্রধান আসামি করে আটজনের নাম উল্লেখ করে, অজ্ঞাত আরও চার-পাঁচজনকে আসামি করে নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান ৮ এপ্রিল সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করে। নুসরাত মারা যাওয়ার পর মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়। ওই মামলায় এজহারনামীয় আটজন মোট ২১ জনকে গ্রেফতার করেছে পিবিআই। এদের মধ্যে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলাসহ ১২ জন হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।


আপনার মন্তব্য