শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০৪

ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

বগুড়ায় এক নারীকে ধর্ষণের পর মাথার চুল কেটে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করা হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টায় বগুড়া শহরের চকলোকমান এলাকায় নির্যাতনের শিকার ২৪ বছরের ওই নারীকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী রফিকুল ও স্বামীর সহযোগী পলাতক।

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় গাইনি ওয়ার্ডের ইউনিট-১-এ ওই নারী চিকিৎসাধীন। তার পিঠের একপাশ থেকে কোমরের নিচের অংশ পুড়ে বড় বড় ফোসকা পড়ে গেছে। বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. তাহমিনা আক্তার জানান, রোগীর শরীরের বেশ কিছু অংশ পুড়ে গেছে। একই সঙ্গে শরীরে আঘাতের চিহ্নও রয়েছে। এখন পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। ধর্ষণের বিষয়টি মেডিকেল চেকআপের পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। নির্যাতিত ওই নারীর পিতা জানান, কিশোরী বয়সেই তার মেয়েকে বিয়ে দিয়েছিলেন। নির্যাতনের শিকার ওই নারী বলেন, শনিবার বেলা ১১টার দিকে রফিকুল বাড়িতে ঢুকেই প্রথমে তার হাত ও মুখ বেঁধে  ধর্ষণ করে। পরে গলার কাছে, বুকে ও মাথার চুলের একপাশ ব্লেড দিয়ে কেটে শাড়িতে তরল কিছু একটা ঢেলে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যায়। এদিকে অগ্নিদগ্ধ ওই নারীর আর্তচিৎকারে আশপাশের বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়। বগুড়ার শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিমুদ্দিন জানান, এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। মামলা দায়ের করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আলামত হিসেবে কাটা চুল পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকে ওই নারীর স্বামী পলাতক। তার সঙ্গে আর কারা ছিল সে বিষয়ে তদন্ত চলছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর