শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৮ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ মে, ২০২১ ২৩:৪০

অনুমোদন পেল এক ডোজের ভ্যাকসিন স্পুটনিক লাইট

প্রতিদিন ডেস্ক

Google News

রাশিয়ার উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনের এক ডোজের একটি সংস্করণ অনুমোদন করেছেন দেশটির কর্মকর্তারা। গত বৃহস্পতিবার অনুমোদন পাওয়া এই টিকাটিকে ‘স্পুটনিক লাইট’ নামে অভিহিত করছেন তারা। সূত্র : ডয়চে ভেলে।

রুশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দুই ডোজের স্পুটনিক টিকার চেয়ে এক ডোজের টিকাটি একটু কম কার্যকর। তবে এর কার্যকারিতা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নির্ধারিত মান অনুসরণ করছে।

প্রসঙ্গত, রাশিয়ার তৈরি স্পুটনিক ভি টিকাটি বিশ্বের ৬০টি দেশে অনুমোদিত। তবে ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি (ইএমএ) এবং আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) স্পুটনিক ভি অনুমোদন দেয়নি। স্পুটনিক ভি টিকা তৈরিতে অর্থায়ন করেছে রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড (আরডিআইএফ)। আরডিআইএফ বলছে, এক ডোজের টিকাটি ৭৯.৪ শতাংশ কার্যকর। অন্যদিকে দুই ডোজের ভ্যাকসিনটির কার্যকারিতা ৯১.৬ শতাংশ। স্পুটনিক ভি টিকা রপ্তানি বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাশিয়া। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেছেন, ১০ লাখ স্পুটনিক ভ্যাকসিন আর্মেনিয়ায় পাঠানোর কথা বিবেচনা করছে মস্কো। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের দেশটিতে এরই মধ্যে গত মাসে ১৫ হাজার ডোজ পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশও এই টিকা আমদানির কথা বিবেচনা করছে।

চীনের সিনোফার্মের টিকার অনুমোদন দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা : চীনের সিনোফার্মের উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

পশ্চিমা দেশগুলোর বাইরে উদ্ভাবিত করোনার টিকাগুলোর মধ্যে এটাই প্রথম বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেল। এর আগ পর্যন্ত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা, ফাইজার, মডার্না এবং জনসন অ্যান্ড জনসনের করোনার টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছিল ডব্লিউএইচও।

তবে এশিয়া, আফ্রিকা ও লাতিন আমেরিকার অনেক দেশ চীনের উদ্ভাবিত করোনার টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। ইতিমধ্যে চীনসহ আরও ৪৫টি দেশের লাখ লাখ মানুষকে চীনের টিকা দেওয়া হয়েছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

কয়েক দিন আগে বাংলাদেশেও চীনের সিনোফার্মের টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেওয়া হয়। সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অল্প সময়ের মধ্যে চীন সরকারের উপহার হিসেবে এই টিকার পাঁচ লাখ ডোজ বাংলাদেশে আসছে।

এ ছাড়া চীনা কোম্পানি সিনোভ্যাকের করোনার টিকার বাংলাদেশে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অনুমোদনের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর