Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ মার্চ, ২০১৯ ১৭:৫৪
আপডেট : ২০ মার্চ, ২০১৯ ১৭:৫৭

হয়তো এটাই আমার শেষ বক্তব্য : এরশাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

হয়তো এটাই আমার শেষ বক্তব্য : এরশাদ

দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে ৯০তম জন্মদিনে ৯০ পাউন্ডের কেক কেটে জন্মদিন উদযাপন করলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। 

বুধবার দুপুরে গুলশানের একটি কনভেনশন সেন্টারে জন্মদিন উদযাপনের আয়োজন করা হয়। এসময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, আমার মত অত্যাচারিত নিষ্পেষিত ব্যক্তি পৃথিবীতে আর নেই। আমার পক্ষে যেনো রায় না যায়। সেজন্য সাতবার বিচারক পরিবর্তন করা হয়েছে। বিনা বিচারে আমাকে ছয় বছর কারাগারে রাখা হয়েছে। হয়তো এটাই আমার শেষ বক্তব্য। 

এর আগে গাড়ি থেকে নেমে হুইল চেয়ারে করে কনভেনশন সেন্টারে প্রবেশে করেন বিরোধী দলীয় এই নেতা। এসময় এক আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়। 

পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা বক্তব্য রাখেন। 

জন্মদিন উপলক্ষ্যে বুধবার সন্ধ্যায় গুলশানের পিংক সিটিতে জাপার যুগ্ম-মহাসচিব হাসিবুল ইসলাম জয়ের উদ্যোগে কেক কাটা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে জিএম কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

জাপা নেতা ও সংগীত শিল্পী শাফিন আহমেদসহ বিভিন্ন শিল্পীরা গান পরিবেশন করেন।  

কনভেনশন সেন্টারে এইচ এম এরশাদ আরও বলেন, দীর্ঘ দিন কারাগারে ছিলাম। কেউ পাশে ছিল না। শত অত্যাচার আমাদের দমাতে পারেনি। শুধু মনের জোরে এগিয়ে চলেছি, তাই শত ষড়যন্ত্র আমাদের ধংস করতে পারেনি। 

জাতীয় পার্টির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, অবিচার আর অত্যাচারে যে দল ভেঙে পড়ে না, সে দলকে কেউই ধংস করতে পারবে না। 

নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করে তোলো, যাতে আগামী নির্বাচনে ক্ষমতায় যেতে পারে।  

রওশন এরশাদ তার বক্তব্যে এরশাদের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরলে কর্মীরা সিএমএইচে এরশাদের ভুল চিকিৎসার জন্য বিচারের দাবিতে স্লোগান দিতে থাকেন। 

স্লোগানের এক পর্যায়ে রওশন এরশাদ বলেন, সিএমএইচে ভুল চিকিৎসা হতে পারে না। হাসপাতালের ডাক্তারদের সঙ্গে আমি কথা বলেছি। সেনাবাহিনী নিয়ে কোনো বিরূপ মন্তব্য করা উচিত হবে না। 

তিনি এইচএম এরশাদের জন্য সুস্থতা কামনা করে বলেন, এরশাদের ৯ বছরে উন্নয়নের যে রেকর্ড গড়েছেন তা কেউ ভাঙতে পারবে না। বঙ্গবন্ধু একটি স্বাধীন দেশ দিয়ে ছিলেন। কিন্তু দেশটি গড়ার জন্য পর্যাপ্ত সময় বঙ্গবন্ধু পাননি। কিন্তু দেশ গড়ার জন্য এরশাদের অসংখ্য কীর্তি অক্ষয় হয়ে আছে। 

জিএম কাদের বলেন, এইচ এম এরশাদ আমাকে পিতার মত লালন পালন করেছেন, পুরো পরিবারকে আগলিয়ে রেখেছেন। শুধু আমাদের পরিবারকে নয়, নয় বছর পুরো দেশকেই আগলিয়ে রেখেছিলেন। 

অনুষ্ঠান শেষে পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা গণমাধ্যমকে বলেন, বাংলাদেশে পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ  এরশাদের কখনোই ভুল চিকিৎসা হয়নি।

বিডি প্রতিদিন/২০ মার্চ ২০১৯/আরাফাত


আপনার মন্তব্য