শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০৮:৪২
আপডেট : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১০:৩৮
প্রিন্ট করুন printer

আহমেদাবাদ টেস্টের পিচ নিয়ে বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞেরা

অনলাইন ডেস্ক

আহমেদাবাদ টেস্টের পিচ নিয়ে বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞেরা
ফাইল ছবি

দুই দিনে শেষ হয়ে গেছে ইংল্যান্ড ও ভারতের মধ্যকার তৃতীয় টেস্ট। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর পাঁচদিনের ক্রিকেটের এটি দ্রুততম নিষ্পত্তি। ফলে পিচ নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। একপক্ষ পিচের দোষ না দেখলেও আর একপক্ষ বিক্ষোভে ফেটে পড়ছে। আমদাবাদ টেস্টে হেরেছে ইংল্যান্ড, তাই বলাই বাহুল্য পিচ নিয়ে কটাক্ষ করছেন সে দেশেরই বিশেষজ্ঞেরা।

ধারাভাষ্যকার ডেভিড লয়েড বলেন, টেস্ট ক্রিকেটকে লটারির পর্যায়ে নামিয়ে আনা হয়েছে। ডেভিড লয়েডের দাবি, এরকম লটারিতে কে জিতল কে হারল তাতে চিন্তিত নন তিনি। তার কথায়, এটা কোনও লড়াই হয়নি। ব্যাটসম্যানদের টেকনিক দুর্বল ছিল, তবু এই পিচ যদি আইসিসির কাছে গ্রহণযোগ্য হয় তবে আগামীতে টেস্ট ক্রিকেটের দুর্দিন আসছে। ক্রিকেট বোর্ডগুলো পাঁচদিনের ক্রিকেটের দৈর্ঘ্য থেকে পয়সা আয় করে, ইংল্যান্ড তো বটেই। এরকম ছোট টেস্ট ম্যাচ শুধুমাত্র আর্থিক বিপর্যয়। আইসিসিকে এ নিয়ে প্রশ্ন করা উচিত, কিন্তু জবাব পাওয়া যাবে না তা নিয়েও নিশ্চিত তিনি। 

লয়েডের মতো সরাসরি আক্রমণের রাস্তায় যাননি মাইকেল ভন। ব্যঙ্গাত্মক টুইট করে তিনি লিখেছেন, যদি এরকম পিচই হয়, তবে আমার কাছে একটা সমাধান রয়েছে, দুই দলকেই তিনটি করে ইনিংস খেলতে দেওয়া হোক। 

চার ইনিংস মিলিয়ে মাত্র ১৪০ ওভার খেলা হয়েছে আহমেদাবাদ টেস্টে। পড়েছে ৩০ উইকেট যার ২৮টি উইকেট নিয়েছেন স্পিনাররা। প্রথম দিন থেকেই বল ঘুরছিল একহাত করে। দ্বিতীয় দিনে অবস্থা আরও খারাপ হয়ে যায়। সুনীল গাভাস্কার অবশ্য দেড়দিনে খেলা শেষ হওয়ার পেছনে ব্যাটসম্যানদের দুর্বলতার কথা বলেছেন। একই কথা বলতে শোনা গেছে ভারতের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলিকেও।        


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত


আপনার মন্তব্য