শিরোনাম
বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

ত্বকের ধরন বুঝে তেল বাছুন

ত্বকের ধরন বুঝে তেল বাছুন

ছবি : মনজু আলম

তেলের গুণ সবারই জানা। কিন্তু সব তেল তো সব ধরনের ত্বক উপযোগী নয়। কোনো তেল ভারী আবার কোনো তেল হালকা। কোনো তেল ত্বকে চটচটে আবার কোনো তেল নিমিষেই মিশে যায়। এ জন্য অবশ্যই আপনার ত্বকের ধরন বুঝে তেল ব্যবহার করুন।

 

তৈলাক্ত ত্বক :

একে তো তেলতেলে, তার ওপর আপনিও এমন ত্বকে যদি চটচটে তেল দেন তাহলে অ্যাকনে আটকাতে সাধ্য কার! তাই এমন ত্বকে হালকা ধরনের তেল বা অ্যান্টি ইনফেকশন ক্ষমতাযুক্ত তেল সবচেয়ে আদর্শ। এ ক্ষেত্রে লেমন, টি-ট্রি জোজোবা, নারিকেল এবং ল্যাভেন্ডার বেস্ট।

 

শুষ্ক ত্বক :

মনে হতেই পারে যে, আপনার যেহেতু শুষ্ক ত্বক, তাই একগাদা মেখে নিলেই হয়তো কার্যসিদ্ধি হবে। এমন ভাবা বোকামি। হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই বুঝেশুনে তেল বাছুন। স্যান্ডালাইড, আমন্ড, রোজ, ক্যামোমাইল ইত্যাদি তেল কিন্তু এ ধরনের ত্বকের জন্য আদর্শ। এ ছাড়াও অলিভ, ক্যাস্টর অয়েলও ট্রাই করতে পারেন।

 

স্বাভাবিক ত্বক :

এ ধরনের ত্বকের অধিকারীদের তেল বাছতে খুব একটা ঝামেলা পোহাতে হয় না ঠিকই, তবে সবচেয়ে বেটার অপশন কোনটি তা তো আর জানতে অসুবিধে নেই। এ ক্ষেত্রে জেসমিন, আমন্ড, ল্যাভেন্ডার, টি-ট্রি ইত্যাদি অয়েল অনেক বেশ কার্যকর।

 

মিশ্র ত্বক :

এ ধরনের ত্বকের জন্য খুব ভালো হয় যদি দুই ধরনের তেল ব্যবহার করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে ল্যাভেন্ডার অয়েল ভালো অপশন। টি-জোন অতিরিক্ত তৈলাক্ত হলে টি-ট্রি অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন।

 

চুলের যত্নেও তেল বাছাই :

ত্বকের মতো চুলের ক্ষেত্রেও কিছু নিয়মনীতি রয়েছে। মাথার স্ক্যাল্পে সব ধরনের তেল ব্যবহারে কার্যসিদ্ধি হাসিল হয় না। যেমন- তৈলাক্ত স্ক্যাল্পে ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহার খুব একটা সুবিধার হবে না। আর যদি মাখেনও তবে বেশিক্ষণ রাখবেন না। শুষ্ক চুলের জন্য অর্গান অয়েল সবচেয়ে বেশি কার্যকর। বাছাবাছির অপশনে যেতে না চাইলে হাতের কাছে নারিকেল তেল তো আছেই! সব ধরনের চুলের জন্য এই তেলের দ্বিতীয়টি আর নেই।

 

লেখা : উম্মে হানি

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর