শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ জুলাই, ২০২১ ২৩:৫২

করোনায় মৃতের লাশপ্রতি ৩০০ টাকা আদায়ের অভিযোগ

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

Google News

করোনায় মৃতের লাশ বহনের বিল থেকে অবৈধভাবে ৩০০ টাকা করে আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয়, মাঝে-মধ্যে ১ থেকে ৩ হাজার টাকা জরিমানাও আদায় করতেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফরিদুল হক। লাশ বহনকারী রুবেল, হরমুজ, মানিক মিয়া, জামাল, হিরা, শামসু ও কামাল স্বাক্ষরিত আবেদনে এসব অনিয়মের প্রতিকার চেয়েছেন। আবেদন পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. ওয়ায়েজউদ্দিন ফরাজী বলেন, ‘অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ আবেদনে বলা হয়, দীর্ঘদিন ধরে আবেদনকারীরা বিনা বেতনে হাসপাতালের ওয়ার্ড থেকে মৃত রোগীদের লাশ বহন করে আসছেন। রোগীর স্বজনদের কাছ থেকে পাওয়া টাকা দিয়েই তাদের সংসার চলছিল। করোনাকালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ প্রতি লাশ বহনের জন্য তাদেরকে ১ হাজার করে টাকা দেওয়ার বিষয়টি নির্ধারণ করে দেন। এভাবেই লাশ বহন করে আসছিলেন তারা। রোজার ঈদের আগে তারা লাশ বহনের ১০৩টি স্লিপ প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফরিদুল হকের কাছে জমা দেন। তিনি প্রতি লাশের জন্য ৩০০ টাকা করে কেটে রাখেন। পরবর্তীতে টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় ১৪৮টি লাশের বিলও আটকে গেছে।

 এমনকি মাঝে মধ্যেই ১ থেকে ৩ হাজার টাকা জরিমানাও গুনতে হতো লাশ বহনকারীদের। নিয়মের বাইরে গেলে পুলিশি হয়রানি করা হতো বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে লাশ বহনকারী জামাল বলেন, লাশপ্রতি ৩০০ টাকা করে দিতে রাজি না হওয়ায় এবং এর প্রতিবাদ করায় আমাদের বের করে দিয়ে নতুন লোক নিয়োগ দিয়েছেন।

প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফরিদুল হক গণমাধ্যমকে বলেন, প্রতি লাশের জন্য ভ্যাট কেটে ৮০০ টাকা করে জুন পর্যন্ত লাশ বহনকারীদের পরিশোধ করা হয়েছে। এরপর আর কোনো স্লিপ তারা জমা দেননি।

এই বিভাগের আরও খবর