শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল, ২০২১ ১৫:০৪
আপডেট : ২৩ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:২৪
প্রিন্ট করুন printer

১৭০০ ডোজ ফেরত দিয়ে চোর বললেন, ‌‘জানতাম না এটা করোনার টিকা’

অনলাইন ডেস্ক

১৭০০ ডোজ ফেরত দিয়ে চোর বললেন, ‌‘জানতাম না এটা করোনার টিকা’

ভারতের হরিয়ানার এক চোর ১৭০০ ডোজ করোনার টিকা চুরি করেছিলেন। কিন্তু চুরির ২৪ ঘণ্টা যা যেতেই তা ফেরত দিলেন তিনি। কী কারণে ফেরত দিলেন তিনি?

আসলে তিনি নাকি জানতেনই না যে, ওই ব্যাগে করোনার টিকা আছে। নিজের অজান্তেই করা সেই ‘ভুল’ শুধরে নিতেই ছোট্ট চিরকুট লিখে টিকার পুরো ব্যাগটিই ফেরত দিয়েছেন তিনি। 

বৃহস্পতিবার হরিয়ানার জিন্দ জেলার পিপি সেন্টার জেনারেল হাসপাতালের স্টোর রুমে রাখা ১ হাজার ৭১০টি টিকার ডোজ চুরি যায়। স্টোর রুমে একটি ব্যাগে কোভ্যাক্সিন ও কোভিশিল্ড দু’ রকম টিকাই ছিল। বৃহস্পতিবার হাসপাতালের স্টোর রুম খুলে দেখা যায়, সেখানে একটি টিকার ভায়ালও নেই। স্টোর রুমের দরজা ভেঙে শুধু টিকাগুলোই চুরি করেন চোর। স্টোর রুমে বাকি ওষুধ বা অন্য চিকিৎসার উপকরণ যা ছিল, সে সবে হাত দেওয়া হয়নি। যেমন ছিল সেগুলো, ঠিক তেমনই রয়েছে। এর জেরে গোটা জেলায় টিকার সরবরাহ বন্ধ হয়। বর্তমানে এমনিতেই টিকার আকাল। এর মধ্যে চোরের এই কীর্তিতে আরও সমস্যায় পড়েন স্বাস্থ্যকর্মীরা।

কিন্তু ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বোধোদয় ঘটে চোরের। নিজের ভুল বুঝতে পেরে টিকার ডোজগুলো ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেণ। বৃহস্পতিবার দুপুরে জিন্দের সিভিল লাইন থানার সামনে এক ব্যক্তিকে টিকার ব্যাগটি দেন তিনি। 

ওই ব্যক্তিকে তিনি জানান, ব্যাগটিতে পুলিশ কর্মীদের জন্য খাবার আছে। তাড়া থাকায় নিজে পৌঁছে দিতে পারছেন না। ওই ব্যক্তিকেই অনুরোধ করে টিকার ব্যাগটি থানায় পৌঁছে দিতে। 

ব্যাগটি থানায় পৌঁছাতেই দেখা যায়, তার ভেতরে চিরকুটে লেখা,’দুঃখিত, আমি বুঝতে পারিনি এর ভেতরে করোনার ওষুধ আছে।’ পুলিশ এখন ওই ‘সহৃদয়’ চোরের খোঁজ করছে। তাদের ধারণা, অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ রেমডিসিভির চুরি করতে এসেছিল ওই ব্যক্তি। কিন্তু তিনি ভুল করে টিকা নিয়ে চলে গিয়েছিলেন।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন, এনডিটিভি  

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ


 


 

 

এই বিভাগের আরও খবর