শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:০৪

মার্কেটের রাস্তার জন্য ভেঙে ফেলা হলো ৪০ পাবলিক টয়লেট

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

মার্কেটের রাস্তার জন্য ভেঙে ফেলা হলো ৪০ পাবলিক টয়লেট
পোড়াদহ হাটে গুঁড়িয়ে দেওয়া স্থাপনা -বাংলাদেশ প্রতিদিন

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম কুষ্টিয়ার পোড়াদহ কাপড়ের হাটের ৪০টি পাবলিক টয়লেট, প্রসাব ও অজুখানা বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ব্যক্তি মালিকানাধীন একটি মার্কেটে যাওয়ার পথ তৈরি করতে গত সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটানো হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। ন্যক্কারজনক এ কাজের প্রতিবাদ ও জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় মুসল্লি ও ব্যবসায়ীরা। মঙ্গলবার রাতে তারা বিক্ষোভ করেছেন। এ বিষয়ে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক ও মিরপুরের ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন পোড়াদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মোশারফ হোসেন। মিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল আরেফিন জানান, কাপড়ের হাটে আসা মানুষের দুর্ভোগের কথা ভেবে হাট সংলগ্ন মসজিদের পাশে সরকারি জমিতে কয়েক বছর আগে ৪০টি টয়লেট ও প্রসাবখানা নির্মাণ করা হয়েছিল। সেখানে করা হয়েছেও মসজিদের ওজুখানাও। স্থানীয়রা জানান, হাটের দিনগুলোতে ক্রেতা-বিক্রেতারা এই টয়লেট ব্যবহার করতেন। এছাড়া হাটের দিন নামাজের সময় মসজিদের নিজস্ব অজুখানায় জায়গা না হওয়ায় পাবলিক ওজুখানা ব্যবহার করতেন অনেকে। আওয়ামী লীগ নেতা মোশারফ হোসেন জানান, পোড়াদহ কাপড়ের হাট দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর হাট। এই হাটে শত কোটি টাকার লেনদেন হয়। এই হাট ঘিরে লাখো মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে। টয়লেটগুলো ভেঙে ফেলায় হাটে আসা হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হবে। স্থানীয় পোড়াদহ ইউপি চেয়ারম্যান ফারুকুজ্জামান জানান, কারা টয়লেট ও ওজুখানা ভেঙেছে তা মসজিদ কমিটি এবং স্থানীয় বণিক সমিতির নেতারা বলতে পারেবন।


আপনার মন্তব্য