শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ জুন, ২০২১ ২৩:১৪

কেরানীগঞ্জে লাইসেন্সবিহীন ফার্মেসির ব্যবসা জমজমাট

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

কেরানীগঞ্জে লাইসেন্সবিহীন ফার্মেসির ব্যবসা জমজমাট
Google News

ঢাকার উপকন্ঠে কেরানীগঞ্জে ওষুধ নিয়ন্ত্রণ আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে উপজেলার বিভিন্ন অলি-গলিতে ব্যাঙের ছাতার মতো যত্রতত্র গড়ে উঠেছে লাইসেন্সবিহীন ফার্মেসি। ঔষধ প্রশাসনের নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে শুধু ট্রেড লাইসেন্স নিয়েই চলছে ক্ষুদ্র ও মাঝারি আকারের হাজারখানের ফার্মেসি ব্যবসা। এসব ফার্মেসি চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ছাড়াই উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবায়োটিক, ঘুমের ট্যাবলেট, যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট, নিষিদ্ধ ভারতীয়, নকল, মেয়াদোত্তীর্ণ ও নিম্নমানের নানা ধরনের ওষুধ বিক্রি করছে অবাধে। এতে রোগ নিরাময়ের পরিবর্তে আরও জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন রোগীরা। ফলে  আর্থিক, শারীরিক ও মানসিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন অনেক রোগী ও তাদের পরিবার-পরিজন। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে মালিক ও কর্মচারীই ডাক্তারি করছে। ফলে প্রতিনিয়ত  অপচিকিৎসার শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ। আবার লাইসেন্সবিহীন এলোপ্যাথিক ওষুধের পাশাপাশি আয়ুর্বেদী ও হোমিওপ্যাথিক  ওষুধের ফার্মেসি খুলে বসেছে অনেকে। তবে ফার্মেসি পরিচালনার জন্য যে ন্যূনতম যোগ্যতা প্রয়োজন তাও আবার নেই অনেক ফার্মেসি মালিকদের। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ফার্মেসিগুলোতে সরজমিন গিয়ে জানা যায়, তারা ফার্মেসি ব্যবসা শুরু করার পূর্বে অন্যের ফার্মেসিতে কাজ করেছেন কিছুদিন। সেখান থেকে অভিজ্ঞতা অর্জন করে নিজেই আরম্ভ করেছেন ফার্মেসি ব্যবসা। অভিযোগ আছে, এসব ফার্মেসিতে অধিকাংশই ডাক্তারের ব্যবস্থাপত্রের বাইরে ওষুধ সরবরাহ দিয়ে থাকেন। সাধারণ মানুষের ওষুধের মূল্য সম্পর্কে ধারণা না থাকায় ৫ টাকার ওষুধ ২০-৩০ টাকায় বিক্রি করছেন।

এই বিভাগের আরও খবর