শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ১৮:৪৫

মানিকগঞ্জে পাসপোর্ট করাতে এসে রোহিঙ্গা নারী আটক

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

মানিকগঞ্জে পাসপোর্ট করাতে এসে রোহিঙ্গা নারী আটক
প্রতীকী ছবি

মানিকগঞ্জে পাসপোর্ট করাতে এসে এক রোহিঙ্গা নারী আটক হয়েছেন। আজ বুধবার বেলা ১২টার দিকে মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে নিজের পরিচয় গোপন করে পাসপোর্ট করার সময় ধরা পরেন তিনি। পরে তাকে মানিকগঞ্জ সদর থানা পুলিশের কাছে সোর্পদ করা হয়। 

এদিকে পাসপোর্ট ফরমে সত্যায়নকারী মানিকগঞ্জের আইনজীবী মো. মনোয়ার হোসাইনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। 

মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক মাকসুদুর রহমান জানান, বুধবার বেলা ১২টার দিকে সাটুরিয়ার রেজাউল করিম নামে এক ব্যক্তি স্ত্রী পরিচয় দিয়ে পাসপোর্ট করাতে আসেন। তিনি জানান, ওই নারী মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ২নং দিঘলীয়া ইউনিয়নের বেংরোয়া গ্রামের আব্দুল হাইয়ের মেয়ে জান্নাত আক্তার। জন্ম ১০ই জুন ২০০০ সালের দেখিয়ে একটি নাগরিক সনদ নিয়ে পাসপোর্ট ফরম দাখিল করেন।  

এসময় ওই নারীর কথা বার্তা সন্দেহ হলে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিবন্ধিত সার্ভার ঘেটে দেখেন তিনি রোহিঙ্গা নারী। তার নাম আসমা। বাবা সিরাজুল হক। রোহিঙ্গা নিবন্ধিত নম্বর ১৪৩২০১৭১২১৩১৫৪৪১৫। তার জন্ম তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০০১। আসমা ২০১৭ সালের ১০ অক্টোবর চট্টগ্রামের টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিবন্ধিত হয়। পরে তিনি সদর থানা পুলিশের কাছে তাকে সোপর্দ করে। 

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান জানান, রোহিঙ্গা ওই নারী সাটুরিয়ার জনৈক রেজাউল করিম মানিকগঞ্জে পাসপোর্ট করাতে নিয়ে আসেন। ওই নারী রেজাউল করীমের সাভারের বাসায় গত দুই সপ্তাহ আগে চট্টগ্রাম থেকে আসেন। বুধবার সরাসরি তিনি ওই রোহিঙ্গা নারী ও তার প্রকৃত স্ত্রী ও একটি কন্যা সন্তানসহ মানিকগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে যান।

ওই নারীর সনাক্তকারী মানিকগঞ্জের আইনজীবী মো. মনোয়ার হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। এবিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য