শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ২০:৩১

দিনাজপুরে পিয়াজের কেজি ২৫০, দাম বেড়েছে সবজির

দিনাজপুর প্রতিনিধি:

দিনাজপুরে পিয়াজের কেজি ২৫০, দাম বেড়েছে সবজির

দিনাজপুরের বিভিন্ন উপজেলায় প্রতি কেজি পিয়াজ বিক্রি হয়েছে ২৪০ টাকা থেকে ২৫০ টাকা এবং একই সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে শীতের কাঁচা শাক-সবজির দামও। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চললেও দাম কমছে না পিয়াজের। 

এদিকে পিয়াজের দাম বৃদ্ধিতে ফুলবাড়ীতে পিয়াজের বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরী। পিয়াজের ক্রয়মূল্য প্রদর্শন করতে না পারায়, ভোক্ত অধিকার আইনে মিহির চন্দ্র নামে এক পিয়াজ ব্যবসায়ীর ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, পিয়াজের ব্যবসায়ীরা আমদানি মূল্য প্রদর্শন না করে ইচ্ছেমত পিয়াজের মূল্য বৃদ্ধি করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, গত তিন দিনের ব্যবধানে প্রতিকেজি পিয়াজে মূল্য ৮০টাকা থেকে ১০০ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫০ টাকা থেকে ২৬০ টাকা। একই সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে কাঁচা শাক-সবজির দামও। গত দুইদিন আগে যে ফুলকপি প্রতিকেজি বিক্রি হয়েছে ৩০ টাকা থেকে ৪০ টাকা, সেই ফুলকপি প্রতিকেজির মূল্য ৬০ টাকা। একই ভাবে বেড়েছে বাঁধাকপি, পোটল, আলু, সীম,পাতা, পিয়াজ, করল্লা, গাজর, বেগুন, রসুন, টমাটো ও আদাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় কাঁচা শাক-সবজির দাম।

সবজি ব্যবসায়ী আতাউর রহমান বলেন, বর্তমানে কাঁচা সবজির চাহিদা বেড়ে যাওয়ায়, পাইকারী বাজারে সবজির আমদানি কমে গেছে, যার ফলে সবজির দাম হঠাৎ বৃদ্ধি পেয়েছে। 

আবার সবজির পাইকারী বিক্রেতা হামিদুল ইসলাম বলেন, চারিদিকে আমন ধান কাটা শুরু হওয়ায়, সবজির চাহিদা বেড়েছে, বর্তমানে সবজি দেশের দক্ষিণাঞ্চলে রপ্তানি হচ্ছে। এই কারণে বাজারে সবজির চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় দামও বৃদ্ধি পেয়েছে।

ফুলবাড়ী উপজেলার পিয়াজ ব্যবসায়ী নিঞ্জন কুমার সাংবাদিকদের বলেন, পিয়াজের চাহিদার তুলুনায় আমদানি অনেক কমে গেছে, আবার আমদানীকৃত পিয়াজ সমুদ্র বন্দর থেকে নিয়ে আসতে পরিবহন খরছ অনেক বেশি হচ্ছে, এতে পিয়াজের মূল্য ও ঘাটতি দুটোয় বেড়ে যাচ্ছে, এই কারণে পিয়াজের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

এই পিয়াজ ব্যবসায়ী আরো বলেন, ভারত থেকে পিয়াজ আমদানি করা হলে পরিবহন খরচ কমে যায়, এতে ঘাটতিও কমে যায়, কিন্তু মিয়ানমান, মিশরসহ অন্যান্য রাষ্ট্র থেকে পিয়াজ আমদানি করায় পরিবহন খরচ ও ঘাটতি বেড়ে যায়, যার ফলে পিয়াজের মূল্য বৃদ্ধি পায়।

 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য