Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ জুন, ২০১৯ ২৩:০১

এ কেমন নিষ্ঠুরতা!

ঢাকায় মেয়েকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ও চুয়াডাঙ্গায় গলা কেটে হত্যা মায়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা ও চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

এ কেমন নিষ্ঠুরতা!

রাজধানীর মুগদায় সাড়ে তিন বছরের এক মেয়েকে আইসক্রিমের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে এবং চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় দুই বছরের মেয়েকে গলা কেটে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। দুই হত্যাকা-ই ঘটিয়েছেন দুই মা। জানা গেছে, মুগদায় নিজের মেয়েকে হত্যার পর মা নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তিনি এখন মুগদা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। গত  রবিবার রাতে মুগদার মানিকনগরে এ ঘটনা ঘটে। আত্মহত্যা চেষ্টাকারী ওই নারীর নাম রোকসানা আক্তার রুবি (৩২)। আর মারা যাওয়া শিশুটির নাম রোজা ফারদিন। তার লাশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় রোজার চাচা সোহেল মুগদা থানায় রুবিকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। তাদের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া উপজেলার উত্তরপাড়ায়। মুগদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রলয় কুমার সাহা জানান, শিশুটির বাবা মনজুর হাসান রাসেল হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যাওয়ার পর মেয়ে নিয়ে মুগদার ৯৬ নম্বর মিয়াজান গলি মানিকনগরে থাকতেন রুবি। তিনি কেন এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন তা জানার চেষ্টা চলছে।

এদিকে গতকাল সকালে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় দুই বছরের মেয়েকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে শামীমা খাতুন ওরফে সায়মা নামে আরেক নারীর বিরুদ্ধে। নিহত শিশুটির নাম স্নেহা। আলমডাঙ্গা উপজেলার সোনাতনপুর গ্রামে এ হত্যাকা-টি ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ সময় হত্যার অভিযোগে সায়মাকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুন্সী আসাদুজ্জামান জানান, সোনাতনপুর গ্রামের মামুন অর রশিদের স্ত্রী শামীমা খাতুন ওরফে সায়মা বঁটি দিয়ে তার মেয়ে স্নেহার গলা কেটে হত্যা করেন। প্রতিবেশীরা খবর দিলে সকাল ৯টার দিকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।


আপনার মন্তব্য