শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৩২

দেরি না করে টিকা নিন

-ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেরি না করে টিকা নিন

দেশবাসীকে করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম

বদরুদ্দোজা চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমার বিবেচনায় অক্সফোর্ডের টিকা নির্ভরযোগ্য ও গ্রহণযোগ্য। এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই বললেই চলে। তবে হালকা জ্বর বা কাশি হলেও এখন পর্যন্ত বড় কোনো সমস্যা হয়েছে বলে জানি না। আমি নিজেও আজ (মঙ্গলবার) সপরিবার টিকা নিয়েছি। সবাইকে বলব, দেরি না করে টিকা নিন। করোনার এটাই বড় প্রতিষেধক। তবে সবাইকে মাস্ক পরার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলতে হবে।’ গতকাল সন্ধ্যায় ফোনে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে তিনি এ কথা বলেন। আলাপকালে বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি বলেন, ‘দেশে দ্রুত ভ্যাকসিনের কার্যক্রম শুরু করায় অভিনন্দন জানাই। আমি মনে করি এ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। গুজবও ছড়ানো উচিত না। সুযোগ থাকলে সবারই ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত।’ বি চৌধুরী বলেন, ‘এটা আন্তর্জাতিকভাবেই স্বীকৃত- করোনার প্রধান প্রতিষেধক হচ্ছে ভ্যাকসিন। কিন্তু যত দিন পর্যন্ত পুরোপুরিভাবে করোনা নিয়ন্ত্রণে না আসবে তত দিন মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। ভ্যাকসিনের পরও মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। কারণ এ মুহূর্তে সবাই তো ভ্যাকসিন পাচ্ছে না। সবার মধ্যেই হার্ড ইমিউনিটি তো আর হচ্ছে না। যাদের হার্ড ইমিউনিটি হবে না তাদের মধ্যে জার্মটা থেকেই যাবে। অন্তত শতকরা ৬০ ভাগের মধ্যে টিকা হয়ে গেলে বাকি ৪০ ভাগের মধ্যে হার্ড ইমিউনিটি চলে আসবে।’ তিনি বলেন, ‘যেহেতু আমাদের দেশে তুলনামূলক কম লোককেই ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে তাই মাস্ক পরে থাকাই উচিত। এ ছাড়া বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এমনিতেই মাস্ক পরা জরুরি। ঢাকা শহরে ধুলাবালিসহ নানাবিধ কারণে এটা জরুরি।’ চিকিৎসাবিজ্ঞানের এই অধ্যাপক বলেন, ‘করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক হিসেবে অক্সফোর্ড ও ফাইজারের ভ্যাকসিন ভালো। তবে ফাইজারের টিকা যে তাপমাত্রায় রাখা জরুরি তা আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে সহনীয় নয়। এ কারণে বাংলাদেশের জন্য অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনই উপযোগী। তবে এটা সরকারকে প্রাথমিকভাবে প্রয়োগ করে কার্যকারিতা যাচাই করা উচিত। এরই মধ্যে সরকার সে উদ্যোগ নিয়েছে। এ জন্য সরকারকেও আমি অভিনন্দন জানাই।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর