Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩৯

রিজার্ভ চুরিতে সিআইডির তদন্ত

প্রতিবেদন জমায় আরও এক মাস

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রতিবেদন জমায় আরও এক মাস

সাইবার জালিয়াতির মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের চুরির মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দিতে আরও এক মাস সময় পেল পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। আগামী ১৩ মার্চের মধ্যে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে গতকাল আদেশ দিয়েছে আদালত। তদন্ত শেষ করতে এ নিয়ে ৫৮ বারের মতো সময় দেওয়া হলো।

২০১৬ সালে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ১০১ মিলিয়ন ডলার খোয়া যাওয়ার ব্যাপারে গতকাল আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা ছিল সিআইডির। কিন্তু সংস্থাটির অতিরিক্ত এসপি রায়হান উদ্দিন খান গতকালও তদন্ত প্রতিবেদন দিতে না পারায় ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী এক মাস সময় বাড়িয়ে দেন। এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকের সাবেক এক শাখা ব্যবস্থাপককে ১০ জানুয়ারি দোষী সাব্যস্ত করে দেশটির আদালত। অর্থ পাচারসহ আটটি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে দ- দেওয়া হয়। প্রতিটি অভিযোগে সাত বছর করে ৩২ থেকে ৫৬ বছরের সাজা দেয় আদালত। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের এ ঘটনায় অর্থ স্থানান্তরের সুইফট সিস্টেমের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপাইন ও শ্রীলঙ্কায় কিছু ভুয়া ব্যাংক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করা হয়েছিল। এই বিপুল পরিমাণ অর্থ চুরি যাওয়ার পর প্রায় এক মাস ঘটনাটি চেপে রেখেছিল বাংলাদেশ ব্যাংক। পরে মার্চ মাসে ফিলিপাইনে প্রকাশিত সংবাদের বরাতে বাংলাদেশের গণমাধ্যমে এ-সংক্রান্ত খবর বের হলে ঘটনাটি স্বীকার করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ঘটনার জের ধরে সে সময় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরের পদ ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন আতিউর রহমান। সেই সঙ্গে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল দুজন ডেপুটি গভর্নরকেও। এ ঘটনায় সে বছরের ১৫ মার্চ রাজধানীর মতিঝিল থানায় বাংলাদেশ ব্যাংকের যুগ্ম-পরিচালক জোবায়ের বিন হুদা একটি মামলা করেন। এখন পর্যন্ত ফিলিপাইন থেকে ১৫ মিলিয়ন ও শ্রীলঙ্কা থেকে ২০ মিলিয়ন ডলার উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে বাংলাদেশ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর