শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২৩:২২

বর্ণাঢ্য আয়োজনে বড়দিন উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক

বর্ণাঢ্য আয়োজনে বড়দিন উদযাপন

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে গতকাল বড়দিন উদযাপন করেছেন দেশের খ্রিস্টান সম্প্রদায়। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, দুই হাজারেরও বেশি বছর আগে এই শুভদিনে পৃথিবী আলোকিত করে জন্ম নেন খ্রিস্ট ধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিস্ট। বেথেলহেমের এক গোয়ালঘরে কুমারীমাতা মেরির কোলে জন্ম হয় যিশুর। সেই স্মৃতিকে স্মরণ করে বড়দিনে গির্জাগুলোতে প্রতীকী গোয়ালঘর তৈরি করা হয়। সকালে ঢাকার কাকরাইলের সেন্ট মেরিস ক্যাথিড্রালে বড়দিনের প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়া সকাল থেকেই বিভিন্ন চার্চ, বাড়ি এবং হোটেলগুলোতে চলে নানা অনুষ্ঠান। আর্চবিশপ প্যাট্রিক ডি রোজারিও বলেন, অন্যায়-অবিচার, হিংসা-দ্বেষ, নির্যাতন-নিপীড়ন,  দারিদ্র্য, সন্ত্রাস ও ধর্মান্ধতায় মুক্তিকামী মানুষ যখন শৃঙ্খলাবদ্ধ, তখন তাদের কাছে যিশুখ্রিস্ট মুক্তিদাতা হয়ে আসবেন। এই বিশ্বাস আমাদের মুক্তি দেবে। দয়া, ভালোবাসা ও সেবায় এ বিশ্বাস প্রকাশ পাবে। অভিজাত হোটেলগুলোতে বড়দিন উপলক্ষে ছিল বিশেষ আয়োজন। বিশেষ করে শিশুদের জন্য আলাদা আয়োজন করে হোটেলগুলো। সেখানে শিশুদের জন্য নানা ধরনের খেলার ব্যবস্থা করা হয়। প্রধান আকর্ষণ হিসেবে ‘শান্তাক্লজ’ আসেন নানা উপহার ও চমক নিয়ে। বড়দিনকে ঘিরে রাজধানীর পাঁচতারকা হোটেলে সাজসজ্জার পাশাপাশি বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। হোটেল র‌্যাডিসন ব্লুতে গিয়ে দেখা যায়, বড়দিন উপলক্ষে হোটেলের লবি সাজানো হয়েছে রঙিন সাজে। ক্রিসমাস ট্রি ঘিরে করা হয়েছে বাহারি আলোকসজ্জা। বড়দিনে র‌্যাডিসন ব্লুতে আয়োজন করা হয় ‘জিঙ্গেল অ্যান্ড জয়’ উৎসব। লবিতে ছিল জিনজার ব্রেড হাউস, যেখানে নানা রকমের মিষ্টি ও কেক রাখা হয়। কিডস পার্টিতে শিশুদের সঙ্গে দেখা করে উপহার দিয়েছেন শান্তাক্লজ। শিশুদের বিনোদনের জন্য ম্যাজিক শো ও কার্টুন মাস্কটের ব্যবস্থা করা হয়। এ ছাড়া স্পেশাল টার্কি ডিনারের আয়োজন ছিল। হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এলিমেন্টস রেস্তোরাঁয় বড়দিনে ছিল ক্রিসমাস ইভ ডিনার ও ডে লাঞ্চের আয়োজন। বড়দিনে হোটেল লা মেরিডিয়ান ঢাকাতে বেহালার সুরের সঙ্গে বিশেষ ক্রিসমাস ক্যারোলের আয়োজন ছিল। উপস্থিত সবার জন্য উন্মুক্ত ছিল পুল। বিশেষ বুফে লাঞ্চ এবং ডিনারের ব্যবস্থা ছিল হোটেলটিতে। বড়দিন উপলক্ষে ঢাকা রিজেন্সি গ্র্যান্ডিওস রেস্টুরেন্টে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বিভিন্ন দেশের খাবার নিয়ে বুফে আয়োজন ছিল। এ ছাড়া ‘ক্রিসমাস কিডস পার্টি’তে শান্তাক্লজ হাজির হয়েছিলেন নানা চমক নিয়ে। বড়দিন উপলক্ষে বিশেষ পার্টির আয়োজন ছিল রাজধানীর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল। হোটেলের পুল সাইটে ছিল জমকালো আয়োজন। উৎসব নির্বিঘœ করতে গির্জাগুলোতে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয় বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।


আপনার মন্তব্য