Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩৮

পাঠক প্রতিবেদন

নদী থেকে বালু উত্তোলনের মহোৎসব

আহ্ছানুল আমীন জর্জ, খুলনা

নদী থেকে বালু উত্তোলনের মহোৎসব

খুলনা শহরের প্রধান নদীগুলো থেকে প্রভাবশালীমহল অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় ক্ষতির শিকার হচ্ছে খুলনা শহররক্ষা বাঁধ। পানি উন্নয়ন বোর্ড ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা এ ব্যাপারে নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। ভৈরব, রূপসা ও ময়ূর নদীর আশপাশের এলাকা থেকে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জানান, নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনের বিরুদ্ধে আমি দৃঢ়ভাবে প্রতিবাদ জানিয়েছি, কিন্তু বালু উত্তোলনকারীরা আমার কথা শোনেননি। অপর এক ব্যবসায়ী আবদুল জলিল বলেন, ভৈরব নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে নদী ভাঙনের আশঙ্কায় অনেক সময় নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে, পানি উন্নয়ন বোর্ডের একজন কর্মকর্তা (পাউবো) জানান, তারা বিষয়টি সম্পর্কে জানেন, কিন্তু কিছু করতে পারেন না। কারণ, বালু উত্তোলনকারীরা অত্যন্ত প্রভাবশালী। থ্রি-হুইলার্স ড্রাইভার্স অ্যাসোসিয়েশন সদস্য মো. মিজানুর রহমান মিল্টন বলেন, আমরা সবসময় অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিপক্ষে। আমরা তাদের উচ্ছেদ কামনা করছি।

খুলনা সিটি করপোরেশনের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর  শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, আমরা শপথ গ্রহণের পর অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করব। পাউবোর একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা জানান, অল্প সময়ের মধ্যে অবৈধ বালু উত্তোলন যারা করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান চালানো হবে। জেলা প্রশাসনের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, প্রশাসন যত দ্রুত সম্ভব  বেআইনিভাবে যারা বালু উত্তোলন করছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করতে যাচ্ছে।


আপনার মন্তব্য