শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:৩৪

গাজীপুরে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে ফের ধর্ষণ

গাজীপুর প্রতিনিধি

Google News

গাজীপুরে এক বিধবাকে দিনের পর দিন জোরপূর্বক ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে মোটা অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) বাসন থানার পুলিশ রবিবার গভীর রাতে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ থানার ঘোষপাড়ার সুকুমার ঘোষের ছেলে নয়ন কুমার ঘোষকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে। পুলিশ ও ধর্ষণের শিকার ওই নারী জানান, তার স্বামী তিন সন্তান রেখে প্রায় দুই বছর আগে মারা যান। স্বামীর রেখে যাওয়া বাড়ি, ট্রাক ভাড়া, আর ইট ভাটার আয়ের অংশ দিয়ে তিন সন্তান নিয়ে তাদের সংসার চলে। গত বছরের ২৮ জানুয়ারি তার বাসার তৃতীয় তলার ভাড়াটিয়া নয়ন কুমার ঘোষ ভাড়া পরিশোধের কথা বলে তার ঘরে প্রবেশ করে। এ সময়ে তাকে একা পেয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও করে। ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ করলে ধর্ষিতার সন্তানদের এসিড দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া এবং ভিডিওটি নেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখায়। পরবর্তীতে ভিডিও প্রচারের ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই নারীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করতে থাকে। কিন্তু লোকলজ্জার ভয়ে কাউকে কিছু বলতে পারেননি। দিন দিন অবস্থার আরও অবনতি হতে থাকে। একপর্যায়ে ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে নয়ন তার কাছে ২০ লাখ টাকা দাবি করেন। উপায়ন্তর না পেয়ে তিনি স্বামীর রেখে যাওয়া দুটি ট্রাক বিক্রি করে নয়নের হাতে ২০ লাখ টাকা তুলে দেন। কিন্তু এতেও ক্ষান্ত হয়নি নয়ন। কিছুদিন পর সে আবারও একই হুমকি দিয়ে আরও ৫০ লাখ টাকা দাবি করে। এ টাকা যোগাতে বাড়ি বিক্রির জন্য চাপ দেয় সে। সর্বশেষ গত ৯ এপ্রিল মধ্যরাতে টাকা না দিলে এসিড মেরে পরিবারের সদস্যদের পুড়িয়ে মারার ও ধর্ষণের ভিডিওটি নেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে নয়ন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বাসন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ মিজানুর রহমান জানান, ওই নারী ১০ এপ্রিল এ ঘটনায় বাসন থানায় মামলা করেন। পরে গভীর রাতে নয়নকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর