শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৩০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ অক্টোবর, ২০১৯ ২৩:২৭

বিনিয়োগের টার্গেট বাংলাদেশ

এ সুসময় ধরে রাখতে হবে

বিনিয়োগের টার্গেট বাংলাদেশ

বাংলাদেশ বিদেশি বিনিয়োগকারীদের মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হতে যাচ্ছে। মালয়েশিয়ার ব্যবসায়ী সম্প্রদায় বাংলাদেশে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সৌদি ব্যবসায়ীরা বিদ্যুৎ খাতে বাংলাদেশে ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে। গত এক মাসে বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহ প্রকাশ করে বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিভা) ও সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতরের সঙ্গে বৈঠক করেছে যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস, সৌদি আরব ও মালয়েশিয়ার মতো বড় বিনিয়োগে আগ্রহী দেশগুলো। বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশকে এখন বিনিয়োগের আকর্ষণীয় স্থান হিসেবে ভাবছে। তারা দেখছে ১৬ কোটির অধিক জনসংখ্যার দেশটির মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েই চলেছে। ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে জিডিপি। রপ্তানি, রেমিট্যান্স, সামষ্টিক অর্থনীতির সূচকগুলোতেও রয়েছে ইতিবাচক প্রভাব। এ ছাড়া ব্যবসা ও বিনিয়োগে আগে যেসব বাধা ছিল তা সহজ করার বিষয়ে সরকার কাজ করছে। বিশ্বব্যাংকের ইজি অব ডোয়িং বিজনেস সূচকেও বাংলাদেশের বড় ধরনের অগ্রগতি হয়েছে। এসব কারণে বিনিয়োগকারী দেশগুলোর নজর এখন বাংলাদেশে। বিদ্যুৎ, জ্বালানি, সার কারখানার মতো বড় বড় খাতগুলোর পাশাপাশি স্বাস্থ্য, আবাসনের মতো সেবা খাতের বিনিয়োগেও সম্পৃক্ত হচ্ছেন চীন, জাপান, কোরিয়া, থাইল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশের বিনিয়োগকারীরা। জাপানি ফোর বিলিয়ন হেলথ কোম্পানি লিমিটেড ‘মাই সেবা’ নামে রাজধানীতে চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম শুরু করেছে, যারা জাপানি প্রযুক্তিতে স্বল্পমূল্যে বডি চেকআপসহ নানা ধরনের স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে। চীনা একটি প্রতিষ্ঠান চাকরিজীবীদের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে আবাসন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগে আসছে দুনিয়ার নামিদামি কোম্পানিগুলো। স্যামস্যাং ও হোন্ডার মতো বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে বিনিয়োগে এগিয়ে এসেছে। বিদেশি বিনিয়োগকারীরা মনে করেন ভারত, চীন ও দক্ষিণ এশিয়ার মাঝে বাংলাদেশ এক সম্ভাবনাময় দেশ। ধারাবাহিক উচ্চ প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাকে নিশ্চিত করেছে। ফলে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা তাদের পছন্দের কেন্দ্রবিন্দুতে রাখছে বাংলাদেশকে। নিজেদের স্বার্থেই দেশবাসীকে এই সুসময় ধরে রাখতে হবে।


আপনার মন্তব্য