শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:০১

শক্তিশালী বিরোধী দল

গণতন্ত্রে এর কোনো বিকল্প নেই

সংসদীয় গণতন্ত্রে সরকার ও বিরোধী দল মুদ্রার দুই পিঠ। এর একটি বাদ দিয়ে সুষ্ঠু সরকারব্যবস্থা আশা করা কঠিন। সুশাসন ও গণতন্ত্রের বিকাশেও শক্তিশালী বিরোধী দলের বিকল্প নেই। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি, গত সাত বছর বাংলাদেশ শক্তিশালী বিরোধী দলের অভাবে ভুগছে। বিরোধী দল সংসদে সরকারের ভুলত্রুটি চিহ্নিত করে তাদের শুধরে চলতে সহায়তা করে। সব ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিতকরণে পালন করে ওয়াচডগের ভূমিকা। শক্তিশালী বিরোধী দল না থাকায় এসব ক্ষেত্রে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। গণতন্ত্রের জন্যও দেখা দিচ্ছে বিড়ম্বনা। শক্তিশালী বিরোধী দলের প্রয়োজনীয়তার কথা উঠে এসেছে সংসদ নেতা তথা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যেও। রবিবার একাদশ জাতীয় সংসদে গৃহীত মুজিববর্ষের কার্যক্রম মুজিববর্ষ ওয়েবসাইট ২০২০-২১ এবং জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের অডিও ভাষণের ডিজিটাল সংকলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, গণতন্ত্রের স্বার্থে শক্তিশালী বিরোধী দল নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ। গণতন্ত্রের জন্য শক্তিশালী বিরোধী দল অবশ্যই দরকার, কারণ আমরা গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। নেতৃত্বের অভাবে সংসদে বর্তমান বিরোধী দলগুলো জনগণের কাক্সিক্ষত আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে পারেনি। দেশে গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে সংসদের নিজস্ব ভূমিকা রয়েছে। এখন জনপ্রতিনিধিরা সংসদে জনগণের পক্ষে কথা বলতে পারেন। সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা থাকাকালে দিনগুলোর কথা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সে সময় বিরোধী দলের কথা বলার ক্ষেত্রে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে। আমরা সরকারের পক্ষ থেকে এ ধরনের কোনো সমস্যা তৈরি করছি না। বঙ্গবন্ধুর অডিও ভাষণের ডিজিটাল সংকলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর এ-সংক্রান্ত বক্তব্য খুবই প্রাসঙ্গিক এবং তাৎপর্যের দাবিদার। শক্তিশালী বিরোধী দলের অভাবে গণতন্ত্র স্বকীয় অবয়বে ভূমিকা পালন করতে পারছে না। এটি একটি স্বীকৃত সত্য। এ সীমাবদ্ধতা উত্তরণে বিরোধী দলের পাশাপাশি সরকার দায়বদ্ধ ভূমিকা পালন করবে এমনটিই প্রত্যাশিত।


আপনার মন্তব্য