শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ মে, ২০২১ ০৯:৩৭
প্রিন্ট করুন printer

বাংলাদেশকে করোনা ভ্যাকসিন প্রদানের অনুরোধের ইতিবাচক সাড়া হোয়াইট হাউজ-কংগ্রেসের

যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি

বাংলাদেশকে করোনা ভ্যাকসিন প্রদানের অনুরোধের ইতিবাচক সাড়া হোয়াইট হাউজ-কংগ্রেসের
Google News

বাংলাদেশকে করোনা ভ্যাকসিন প্রদানের অনুরোধে হোয়াইট হাউজ, কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটের প্রধান ও ফরেন এফেয়ার্স কমিটির চেয়ারম্যান, নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে ফরেন এফেয়ার্স কমিটির চেয়ারম্যানসহ গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তা এবং স্টেট ডিপার্টমেন্টে প্রদত্ত পত্রের জবাব মেলেছে। সকলেই ইতিবাচক দৃষ্টিতে বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছেন বলে ফিরতি ই-মেইলে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানিয়েছেন। 

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের জাতীয় প্রেসিডেন্ট ড. এ কে এ মোমেনের আহ্বানে ভ্যাকসিনের জন্যে এই দেন-দরবারে সক্রিয় হয় যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম, আমেরিকা-বাংলাদেশ এলায়েন্স এবং উত্তর আমেরিকা সংস্করণ বাংলাদেশ প্রতিদিন। এসব তথ্য প্রকাশ করা হয় ১৫ মে শনিবার নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে উপরোক্ত সংগঠনের নেতৃবৃন্দের এক মধ্যাহ্নভোজ-সমাবেশে। ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের ‘দ্য নিউ নেশন ইউনিট’র চীফ এবং ডিইউজের সাবেক জনকল্যাণ সম্পাদক হেমায়েত হোসেনের সম্মানে ঈদ-উত্তর এই ভোজের আয়োজন করা হয়।  

এ সময় সংক্ষিপ্ত এক আলোচনার সূচনা বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের কমিউনিকেশন্স ডাইরেক্টর বীর মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার আরো উল্লেখ করেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালনকারি প্রবাসীদের সাথেও এ নিয়ে যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে, যাতে সকলেই নিজ নিজ সিনেটর-কংগ্রেসম্যানের সাথে দেন-দরবার শুরু করেন। পেনসিলভেনিয়াস্থ ডেমক্র্যাটিক পার্টির অন্যতম শীর্ষ নেতা ও প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার এশিয়ান-আমেরিকান বিষয়ক উপদেষ্টা ড. নীনা আহমেদও ভ্যাকসিনের জন্যে হোয়াইট হাউজ-সহ বাইডেন প্রশাসনের নীতি-নির্ধারকদের সাথে যোগাযোগ করেছেন।’ এরও আগে ওয়াশিংটনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম হোয়াইট হাউজ এবং স্টেট ডিপার্টমেন্ট ছাড়াও প্রভাবশালী কয়েকজন সিনেটর-কংগ্রেসমানকে চিঠি দিয়ে বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন প্রদানের অনুরোধ জানিয়েছেন। এসব ভ্যাকসিনের জন্যে প্রয়োজনে বাংলাদেশ অর্থ প্রদানেও সম্মত বলে রাষ্ট্রদূত তার পত্রে উল্লেখ করেছেন।

প্রদত্ত বক্তব্যে সকলকে ঈদ মুবারক জানিয়ে সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের প্রেসিডেন্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা রাশেদ আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিববর্ষ উপলক্ষে কংগ্রেসসহ বিভিন্ন স্টেটে রেজ্যুলেশন, প্রক্লেমেশন, অভিনন্দন-জ্ঞাপণের আনুষ্ঠানিকতায় উপরোক্ত সংগঠনসমূহ কাজ করেছে। এজন্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। 

অনুষ্ঠানের অন্যতম হোস্ট বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের মিয়া বলেন, মুজিব আদর্শে উজ্জীবিত সাংবাদিক হেমায়েত হোসেনের মত নিঃস্বার্থে কর্মরত মানুষের সংখ্যা যত বাড়বে ততোই অদম্য গতিতে এগিয়ে চলা বাংলাদেশ তার অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হবে। কাদের মিয়া আরো বলেন, আমরা প্রবাসে কর্মরত সমমনাদের মধ্যে কোনভাবেই যাতে অনৈক্য তৈরী না হয় সেদিকে যত্নবান থাকতে হবে। সস্তা প্রচারণাকেও এড়িয়ে চলতে হবে। 

অনুষ্ঠানে আরো ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের কোষাধ্যক্ষ ও বিশ্ববাংলা টোয়েন্টিফোর টিভির সিইও আলিম খান আকাশ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের যুক্তরাষ্ট্র শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট হাজী জাফর উল্লাহ এবং ইলিয়াস খান, বাংলাদেশ প্রতিদিনের স্টাফ রিপোর্টার মো. আবুল কাশেম, চীফ এ্যাকাউন্টেন্ট গোলাম মোস্তফা, এনবি টিভির কর্মকর্তা অনিক রাজ, নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের অফিসার জহুরুল ইসলাম, লং আইল্যান্ড কমিউনিটির সংগঠক মোহাম্মদ আলী, তামান্না হোসেন, সীমা খন্দকার প্রমুখ। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর