শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৭:০৮
আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৭:০৯

স্বামী-স্ত্রীকে হত্যার দায়ে পাঁচজনকে যাবজ্জীবন

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

স্বামী-স্ত্রীকে হত্যার দায়ে পাঁচজনকে যাবজ্জীবন

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলা হাজী আব্দুল হাকিম মৃধা ও তার স্ত্রী হাজেরা বেগমকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে পাঁচজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে শরীয়তপুরের জেলা ও দায়রা জজ প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। পাঁচজন আসামিই পলাতক রয়েছেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন ভেদরগঞ্জ উপজেলার কাইচকুড়ি গ্রামের রোমান গোলদার (৩২), সুমন গোলদার (৩০), মমতাজ বেগম (৫৮), সহিদুল্লাহ্ সহিদ (৩২) ও বেলায়েত (৩০)।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ভেদরগঞ্জ উপজেলার কাইচকুড়ি গ্রামের আব্দুল হাকিম মৃধা ও তার স্ত্রী ২০১২ সালের ২২ জুন রাতে রাতের খাবার খেয়ে তাদের দুইতলা বাড়ির নিচতলায় একটি রুমে ঘুমিয়ে পড়েন।সেই রাতে রুমের জানালার গ্রিল ভেঙে আসামিরা ভিতরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় তাদের শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে মুখ, হাত-পা বাঁধা অবস্থায় আব্দুল হাকিম মৃধা ও তার স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরের দিন ২৩ জুন নিহতদের ছেলে মো. আবু আলম মৃধা বাদী হয়ে ভেদরগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেন। পরে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ গঠন করা হয়।

এ মামলায় ১৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের পাবলিক প্রসিকিউটর মির্জা মো. হজরত আলী বলেন, এ রায়ে আমরা খুশি। রায় ঘোষণার সময় পাঁচ আসামি কেউ ছিলেন না। রোমান গোলদার, সুমন গোলদার, মমতাজ বেগম, সহিদুল্লাহ্ সহিদ ও বেলায়েত  পলাতক রয়েছেন।

আসামীপক্ষের আইনজীবী জাহাঙ্গীর আলম (কাসেম) বলেন, আদালতের এই রায়ে আমি খুশি নই। উচ্চ আদালতে যাব।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য